গুন্টার গ্রাস

গুন্টার গ্রাস  |  জন্ম ১৯২৭ সালের ১৬ অক্টোবর

গুন্টার গ্রাসের, পুরো নাম গুন্টার ভিলহেম গ্রাস। বিশ্বব্যাপী গুন্টার গ্রাস নামে সমধিক পরিচিত। একই সঙ্গে তিনি ছিলেন ঔপন্যাসিক, কবি, প্রাবন্ধিক, নাট্যকার, ভাস্কর ও চিত্রশিল্পী।‘টিনড্রাম’ উপন্যাসের জন্য ১৯৯৯ সালে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পান তিনি। ১৯২৭ সালের ১৬ অক্টোবর জার্মানির ডানজিগে গুন্টার গ্রাস জন্মগ্রহণ করেন। তিনি  ২০১৫ সালের ১৩ এপ্রিল, জার্মানির লুবেকে ৮৭ বছর বয়সে মারা যান।

ভাষান্তর  |  হেমায়েত মাতুব্বর

অনুবাদক, লেখক, শিক্ষক: গোয়েথে ইনিস্টিটিউট বাংলাদেশ

 

ভালোবাসা

দিগন্তের পিছনে খোঁজে—
চারটি জুতো পাতার মর্মরধ্বনিতে নড়ে,
কল্পনায় নগ্নপায়ে যেন ঘষে ঘষে চলা—
হৃদয়কে ভাড়া দিয়ে, ভাড়া নিয়ে:
অথবা কোন ঝর্ণা এবং আয়নার ঘরে,
কোন ভাড়াটে গাড়িতে কিংবা চাঁদে—প্রশান্তি,
সদা যেখানে কলঙ্কহীন আয়োজন ভস্ম করে,
শব্দ খোঁজে কোনো সংকীর্ণ পথ।
আজও, সেই বন্ধ ক্যাশের সামনে,
হাতের মাঝে হাতের ঘর্ষণ
আর
চাপা-স্বভাবের সেই বৃদ্ধ আর অনুরক্ত বৃদ্ধা
রেখে চলে ভালোবাসার অঙ্গীকার।

রক্ত কনিকা

এবং আবরণহীনতা
এখনও কিছু অংশে উপস্থিত—
তুমি আমাকে বেদনা দাও,
আর আমি চেষ্টা করি, তোমার হাঁটুতে তা মিলিয়ে দিতে।
তোমার শূন্যতা আমায় চিন্তিত করে,
জানি না, কেন এতটা জঘন্য তুমি,
কেন তোমার থেকে সরাতে পারি না এই আঁখি—
সবুজের মাঝে সবকিছু, নদীর বাঁকেবাঁকে,
সম্পূর্ণই যেসব শুদ্ধ,
তাদের মতো সহজ করে
আমি তোমায় ভালোবাসি
যতটুকু সম্ভব।
তোমার শ্বেত এবং লোহিত রক্তকণিকাকে
ব্যালের মতো মনে করতে আমার ভালো লাগে।
চাই যদি পারি,
তোমার রক্তের স্পন্দন খুঁজে দেখবো,
আমার সমস্ত শ্রম আসলেই মূল্য পেয়েছে কিনা।

চেরিফল

যদি ভালোবাসা কোন কঙ্করের সুড়ঙ্গপথে
আঁচড় ফেলতে পারে কিংবা
গাছগুলোকে পরিতৃপ্ত করে,
তবে
আমিও চাই চেরিকে চেরির মাঝে
চেরি হিসেবেই পেতে।
না না, এই ক্ষুদ্র হাতে আর নয়,
মই দিয়ে,
ধাপের পর ধাপ পার হয়ে
স্বর্গ থেকে বেচে যাওয়া খাবার হিসেবে
চাই।
মিষ্টি অতঃপর তৃপ্তিময়, অন্ধকারের ভেতর যেন
রঙিন স্বপ্ন দেখে কোকিল।
ভালোবাসা যদি কঙ্করের সুড়ঙ্গপথে
আঁচড় ফেলতে পারে
জানি না তখন,
কে কাকে আগে চুম্বন করে…

এনাবেল লি

চেরিপাড়তে গিয়ে পেড়েছিলাম
এনাবেল লি।
স্বর্গীয় ফলের মতো নত হতে চাইনি,
তবু দেখি, হুরগুলো গ্রাস করে নিয়েছে।
তিনটি পাতার ভেতর আমি
ভিমরুলের আঘাতে যেন
ক্ষত-বিক্ষত; চুরচুর।
এনাবেল লি
আমি চেয়েছি পূর্বে এবং এখনো অব্দি
এমনকি চেরি না পাড়তে,
কোনদিন নিজেকে নত না করতে
স্বর্গীয় ফলের কাছে,
এমনকি তোমারও কাছে
এনাবেল লি…