এজরা পাউন্ড

এজরা ওয়েস্টন লুমিস পাউন্ড একজন কালজয়ী মার্কিন কবি ও সমালোচক। তিনি আধুনিক মার্কিন সাহিত্যের অন্যকম পথিকৃৎ। জন্ম ১৮৮৫ সালে, আইডাহোর হেইলিতে। তার কাব্য সংকলন রিপোস্টেস, কবিতা ‘হিউ সেলউইন মোবারলে’ এবং অসমাপ্ত মহাকাব্য দ্য ক্যান্টোস চিরায়ত বিশ্বসাহিত্যকে সমৃদ্ধ করেছে। বিংশ শতাব্দীর গোড়ার দিকে লন্ডনে বেশ কিছু দিন মার্কিন সাহিত্য সাময়িকীর সম্পাদক হিসেবে কাজ করার সময় টি. এস. এলিয়ট, রবার্ট ফ্রস্ট, জেমস জয়েস এবং আর্নেস্ট হেমিংওয়ের সৃষ্টিকর্মের নতুন করে মূল্যায়ন করেন পাউন্ড। মৃত্যু ১৯৭২ সালে।

অনুবাদ করেছেন সবর্না চট্টোপাধ্যায়

একটি মেয়ে

আমার হাতের ভেতরে যেন এক গাছ
আমার বাহুদ্বয় ভেদ করে তার রস
আমার স্তনের গভীরে সেই বেড়ে ওঠা গাছ
ক্রমশ নীচের দিকে
বিস্তার করছে তার শাখা বলিষ্ঠ বাহুর মতোই!
এ এক গাছজন্ম
মসের শরীর…
এত উচুঁ হয়েও তুমি যেন এক শিশু
পৃথিবীকে এত অবুঝ ভেবে নিলে!

 

একটি চুক্তি

আপনার সঙ্গে এক সংঘবদ্ধতা করি, ওয়াল্ট হুইটম্যান
যথেষ্ট ঘৃণা করেছি যাকে
তবু বড়ো শিশুরূপে আসছি তার কাছে
যার পিতা বড়ো অবুঝ একগুঁয়ে!
বন্ধু সান্নিধ্যের বয়স হয়েছে এখন
যে কাঠ ভেঙেছিলেন তিনি একদিন
আজ তা খোদাইয়ের সময়
আমাদের শিকড়ে একই উৎস্রোত
বরং মুখোমুখি বাণিজ্য হোক!

 

অ্যালবা

শীতল ফ্যাকাশে ভেজা পাতার মতো
এই উপত্যকার শীর্ষ লিলিফুল
প্রথম আলোয় শুয়ে থাকে আমার পাশে!

 

দিনগুলো যেন দিন নয় সম্পূর্ণ

সম্পূর্ণ নয় দিনগুলো যেন
যেন রাতগুলো পরিণত নয় যথেষ্ট
জীবন পিছলে যায় মেঠো ইঁদুরের দ্রুততায়
ঘাস নড়ে না শুধু!