মিথ ও মাশরুমের শহরে: শাশ্বত গঙ্গোপাধ্যায়

0
69

সাউথ সিটি মল

‘তোমার হৃৎপিণ্ড যেন বিনামূল্যে
ওয়াই ফাই জোন

ফ্রি সিগন্যাল যাবে তাই,
সারাক্ষণ ফোনে রাখি চোখ’

এই বলে দুজনেই
অক্টোপাস খেতে ঢুকে গেল
লিরিল যুবতী আর তার সঙ্গে ডেনিম যুবক

মনুমেন্ট

কলকাতা শুয়ে থাকা,
তীব্র এক রাক্ষসের নাম

মনুমেন্ট তার উথ্বিত শিশ্ন,
ত্বক ভেদ করে

ভরা পূর্ণিমার রাতে
মাতালেরা যখন ঘুমিয়ে,
শিশ্নমুখ চুঁইয়ে রক্ত মাখা গাঢ় বীর্য ঝরে পড়ে

ফ্রি স্কুল স্ট্রিট

মিসেস ব্রিগান্জা আজ
গিটার শেখাতে নামবে না?

ইউ চাউ রেস্টুরেন্টে গিয়ে বসি
আমরা সকলে

জীবন চিমনি স্যুপ, মাথা থেকে
ধোঁয়া উঠে যায়
সমস্ত তলপেট জুড়ে অনন্ত আগুন শুধু জ্বলে

কৃষ্ণপুর

ঈশ্বর আমাকে দাও,
বেশি নয় দেড় কাঠা জমি়…

কৃষ্ণের বাঁশির সুরে রাধিকার
বিরহ মিশিয়ে

এত ফ্ল্যাট কবে হল,
যেন দুলে ওঠা মাশরুম
মিথ ও মাশরুম ঠেলে হেঁটে যাই,থলে হাতে নিয়ে

 ন্যাশনাল লাইব্রেরি

ওক্তাভিও পাজ আর জর্জ সেফেরিস
পড়বে বলে

কলেজের ক্লাস কেটে কতদিন
এসেছো এখানে

কবিতার শব্দগুলো লুনা
আর অ্যাটলাস মথ,
ছাড়া পেয়ে উড়ে গেছে মাটি পৃথিবীর গানে গানে

 রাসবিহারী অ্যাভিনিউ

সেই লোল নিগ্রো আর কুষ্ঠরোগী
আজও এরা বেঁচে ?

এখন এখানে নেল আর্টশপ,
ক্যাফে বাইলেন

ট্রাম চলে গেছে নদী গর্ভে,
শুধু ফুটপাথ পেরিয়ে
মাথায় জোনাকি জ্বলা, জীবনানন্দ হেঁটে চলেছেন

পরিচিতি: শাশ্বত গঙ্গোপাধ্যায় নব্বই দশকের অন্যতম কবি l প্রাণীবিদ্যায় স্নাতক, পরে ম্যানেজমেন্ট নিয়ে পড়াশোনা করেছেন l একটি কর্পোরেট সংস্থায় কর্মরত l প্রকাশিত বই : প্লুটো গ্রহের বাসিন্দা (২০০১), রাক্ষসের ছেলেমেয়ে (২০০৯), লাল কাঁকড়ার গর্ত (২০১৫), রডোডেনড্রন ক্যাফে (২০২১), শাশ্বত গঙ্গোপাধ্যায়ের কবিতা (২০২২) l গতবছর কায়রো, ইজিপ্ট থেকে প্রকাশিত হয়েছে তাঁর ‘সিলেক্টেড লাভ পোয়েমস’ l ইউ কে এবং ইউ এস এ বুকফেয়ারে কবিতাপাঠে আমন্ত্রিত ছিলেন, যে দুটি বুকফেয়ার প্যান্ডেমিকের কারণে ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত হয়েছে l আমন্ত্রিত ছিলেন আর্জেন্টিনা ও কিউবার আন্তর্জাতিক কবিতা উৎসবে l জার্মানি থেকে সম্মানিত হয়েছেন ‘রাইজিং স্টার ২০২২’ পুরস্কারে l খুব সম্প্রতি নিউ ইয়র্ক থেকে ইংরেজি অনুবাদে প্রকাশিত হয়েছে তাঁর নির্বাচিত কবিতার সংকলন ‘আলতামিরা’ l