থিক নাত হান-এর কবিতা

0
23

থিক নাত হান-এর কবিতা

ভূমিকা- থিক নাত হান (১৯২৬-২০২২) একজন বৌদ্ধ সন্ন্যাসী, শান্তির জন্য যোদ্ধা, লেখক, কবি এবং শিক্ষক। হানের চিন্তাধারা পশ্চিমের বৌদ্ধ ভাবনাকে প্রভাবিত করেছে। প্লাম ভিলেজ ট্র্যাডিশন তৈরি করেছেন তিনি। তাঁর কবিতা আধ্যাত্মিকতায় জেন এবং তাঁর নিজস্ব ভাবনার স্তরকে সংযুক্ত করে।

অনুবাদ ও ভূমিকা—বেবী সাউ

চলার ধ্যান

 

আমার হাত ধর। আমরা হাঁটবো. আমরা শুধু হাঁটব।

আমরা কোনো গন্তব্যের কথা না ভেবে আমাদের হাঁটাটিকে উপভোগ করব।

শান্তিতে হাঁটো। সুখে হাঁটো।

আমাদের পথচলা শান্তির পদচারণা আমাদের পদচারণা সুখের পথচলা।

 

তারপর আমরা শিখি

যে কোনও পথচলা শান্তির নয়

যেখানে পথচলাটাই শান্তি হাঁটা;

কোনো পথচলা সুখের নয়

এই চলাটাই সুখ

আমরা নিজেদের জন্য হাঁটছি

সবর্দা, সবার জন্য হাতে হাত রেখে হাঁটছি আমরা

 

হাঁটো এবং প্রতি মুহূর্তে শান্তি স্পর্শ করো।

হাঁটো এবং প্রতি মুহূর্তে সুখ স্পর্শ করো।

প্রতিটি পথচলা একটি নতুন হাওয়া নিয়ে আসে।

প্রতিটি পদক্ষেপ আমাদের পায়ের নীচে একটি ফুল ফুটিয়ে তোলে।

তোমার পা পৃথিবীকে চুম্বন করুক।

 

পৃথিবীতে আপনার ভালবাসা এবং সুখ মুদ্রিত করো।

এ পৃথিবী নিরাপদ হবে যখন

আমরাও আমাদের মধ্যে অনুভব করবো যথেষ্ট নিরাপত্তা।

 

প্রবাহ

 

আমার মাথা ঢেউয়ের বালিশে–

আমি স্রোতের সাথে ভেসে যাই–

প্রশস্ত নদী, গভীর আকাশ।

 

তারা ভেসে যায়,

তারা ডুবে যায়,

বুদবুদের মতো,

ডানার মতো।

 

অদৃশ্য হওয়া

 

পাতা-ডগাগুলি শিশিরের ভারে বেঁকে যাচ্ছে

ফল পেকে উঠছে পৃথিবীর ভোরে

ড্যাফোডিলগুলি আলোকিত হয়ে উঠছে রোদে।

বাগানের প্রবেশপথে মেঘের পর্দা সরতে শুরু করেছে

শৈশবের জন্য করুণাময়, এই মায়া পথ।

 

গভীর রাতে মোমবাতির নয়নজুলি।

দূরের মরুভূমিতে, একটি ফুল ফোটে।

এবং অন্য কোথাও,

একটি ঠাণ্ডা নক্ষত্রফুল যা কখনই কাসাভা প্যাচ বা অ্যারেকা পামের বাগান জানত না,

কখনও জীবনের আনন্দ জানত না,

সেই মুহূর্তে অদৃশ্য হয়ে যায়-

মানুষের চিরন্তন আকাঙ্ক্ষায়

 

 

তুমিই আমি

 

তুমিই আমি আর আমিই তুমি

এটা স্পষ্ট যে আমরা অন্তরে এক
তুমি তোমার মধ্যে ফুলের চাষ করো
আর আমি সুন্দর হই

 

আমি সমস্ত আবর্জনাকে নিজের মধ্যে গ্রহণ করি

যাতে কষ্ট করতে না হয় তোমাকে

 

আমি তোমাকে সমর্থন করি

তুমি সমর্থন করো আমাকে

 

আমি এখানে এসেছি তোমাকে শান্তি দিতে

তুমি এসেছ, আনন্দিত করতে আমাকে

 

ধ্যান করা

 

ধ্যানের অর্থ সমস্যাটির সঙ্গে যুদ্ধ নয়।

ধ্যান মানে পর্যবেক্ষণ করা

 

তোমার হাসি তাকে প্রমাণ করে

 

প্রমাণ করে যে তুমি,

নিজের সঙ্গে নম্র আচরণ করছো

আর তোমার ভেতর জ্বলে উঠছে সচেতনতার সূর্য

এবং সমস্ত পরিস্থিতি তোমার নিয়ন্ত্রণে

 

তুমি নিজেই নিজের,

এবং অর্জন করেছ কিছু শান্তি

 

কখনো কখনো

 

তোমার আনন্দ তোমার হাসির উৎস কখনো কখনো

 

আবার কখনো কখনো

তোমার হাসি

উৎস হতে পারে তোমার আনন্দের

 

পৃথিবীকে চুম্বন

 

হাঁটো এবং প্রতিটি মুহূর্তে

শান্তিকে অনুভব করো

 

 

হাঁটো এবং প্রতি মুহূর্তে

স্পর্শ করো সুখ

 

প্রতিটি পদক্ষেপ একটি নতুন বাতাস নিয়ে আসে

প্রতিটি পদক্ষেপে ফুটে ওঠুক ফুল

 

তোমার পা চুম্বিত করুক পৃথিবীকে

 

তোমার ভালবাসা এবং সুখে পরিপূর্ণ হোক পৃথিবী

 

পৃথিবী তখনই নিরাপদ

যখন

আমরা আমাদের মধ্যে নিরাপদ থাকবো