সোভিয়েত দেশ: ইন্দ্রাণী বিশ্বাস মণ্ডল

0
131

রাশিয়া আমার স্বপ্নের দেশ
ছোটোবেলা থেকে ওর সঙ্গে আমার পরিচয়।
সোভিয়েত দেশ চিনিয়েছিল নিজেকে
চিনিয়েছিল আরও অনেককে।
বিস্ফারিত চোখে ম্যাপে দেখতাম ওর বেড়ে ওঠা শরীর
উজবেকিস্তান, কাজিকিস্তান, লাতভিয়া,
এস্তোনিয়া, বেলারুশ, ইউক্রেন আরও আরও…..
গান্ধারীর সন্তান ছিল রাশিয়া।

বড় হয়ে দেখলাম–
বড় বিষণ্ণ আর ক্ষণস্থায়ী এই দুনিয়া।
যা চোখে দেখা যায় না, যা কানে শোনা যায়
তা শুধু কান্না ও হাহাকার।

এ মুমূর্ষু জীবনের শেষ কোথায়?
তোমার স্বাধীন দৃষ্টিতে
টুকরো টুকরো হয়েছিল দেশটা।
আমার স্বপ্নের সোভিয়েত দেশ
তিস্তার ছোটো ছোটো
নুড়ি পাথরে পরিণত।

এরা একে অপরের সাথে খেলে না
এরা একে অপরের সাথে মেশে না
এরা একে অপরের দিকে বিষ চোখে তাকায়।

ছবির মতো দেশের শিশুরা নিশ্চিন্তে ঘুমিয়ে পড়েছিল বেশ
ছোটো ছোটো ডানায় উড়েছিল পাখিরা
নদী সাজিয়ে রেখেছিল তীর
পাহাড় ফুটিয়েছিল নানা ফুল
তোমাকে আনন্দ দিতে গমক্ষেতে গড়াগড়ি খাই।

দেশটা একদিন বদলে গেল
ছেঁড়া কাপড়ের মতো টুকরো টুকরো হল
হিংসার পাথরে ঘষা লেগে আগুন জ্বলে উঠল
জ্বলে গেল ক্ষেত, খামার, আকাশ, বাতাস, ঈশান, অগ্নি, নৈঋত।

তুমি ভালোবাসতে ভুলে গেলে
তুমি স্বপ্ন দেখাতে ভুলে গেলে
তুমি সাহস জোগাতে ভুলে গেলে

তোমার চোখে এখন বারুদ আর হিংসা
তোমাকে দেখলে ভয় করে রাশিয়া
তোমাকে দেখলে হাড় হিম হয় রাশিয়া

আকাশে আগুন, বাতাসে আগুন, পাহাড়ে আগুন
এ আগুন যেন গত জন্মের রোখ
এ আগুন যেন মৃত্যুর প্রতিশোধ
এ আগুন যেন হত্যা করার ঝোঁক

আমি জানিনা কে সঠিক বেলারুশ না ইউক্রেন?
আমি জানিনা কবে হবে বারুদ ঠিকানার শেষ!
তবু তোমাকেই ভালোবাসি, ভালোবাসি রাশিয়া
ছোটোবেলায় দেখা সুন্দরী সোভিয়েত দেশ…