লেনার্ড কোহেনের কবিতা

0
246

লেনার্ড কোহেন (জন্মঃ  ২১শে সেপ্টেম্বর, ১৯৩৪; মৃত্যুঃ ৭ই নভেম্বর,২০১৬)। লেনার্ড কোহেন বিশ শতকের একজন জনপ্রিয়  কানাডিয়ান গায়ক, গীতিকার, কবি এবং ঔপন্যাসিক। তাঁর অসংখ্য গানের পাশাপাশি ধর্ম, রাজনীতি,  বিষাদ, যৌনতা,  মৃত্যু এবং রোমান্সে ওতোপ্রোতো তাঁর বহুস্তরীয় কবিতা তাঁকে জীবদ্দশাতেই কিংবদন্তি করে তুলেছিল । তাঁর আপামর পাঠকদের মতে জীবনের সমস্ত ভাঙচুর ধরা পড়ে কোহেনের কবিতায়। কোহেনের জন্ম  কানাডার ওয়েস্টমাউন্টে।আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়ায় তাঁর  মৃত্যু হয়।

লেনার্ড কোহেনের কবিতা
অনুবাদঃ শ্যামশ্রী রায় কর্মকার
মূল কবিতা – I Have Not Lingered In European Monasteries
(ইউরোপের বৌদ্ধ মঠে দীর্ঘ সময়  অতিবাহিত করিনি)

আমি ইউরোপের বৌদ্ধ মঠে দীর্ঘ সময়  অতিবাহিত করিনি
বীরগাথায় যেভাবে বলা হয়, ঠিক তেমন সুন্দরভাবে যাদের পতন ঘটেছিল
সেইসব যোদ্ধার সমাধিতোরণ আবিষ্কার করিনি কোনও দীর্ঘ তৃণবনে
বিচ্ছেদ ঘটাইনি ঘাসেদের
উদ্দেশ্যমূলকভাবে তাদেরকে বিছিয়ে রাখিনি

আমি হিমবন্ত পাহাড় আর জেলেদের মাঝখানে
চাঁদের মতন
জলের গতির নিচে ঝিনুকের মতো
সেই দীর্ঘ দূরত্বে নিজের মনকে
ভ্রমণ ও অপেক্ষার মুক্তি দিইনি

আমি প্রাণায়ামে স্পন্দন শাসন করিনি
বোধির জন্য উপবাস
ঈশ্বরের শ্বাসছন্দ শুনব বলে নিজেকে শ্বাসরুদ্ধ করিনি কখনও
যদিও তাঁকে বহুবার লক্ষ্য করেছি
তবু নিজের দেহটি কূলকিনারায় রেখে
সারস হইনি আমি
বাতাসের স্রোতে নিজেকে ভাসিয়ে দিয়ে
হয়ে উঠিনি কোনও আলোকনন্দিত ট্রাউট মাছ
ক্ষত ও ধ্বংসস্তূপ, লৌহ-চিরুনি
উপাস্য হয়নি আমার
লিনেনে মোড়ানো দেহ অথবা পোড়ানো

আমি দশ হাজার বছরে একবারও অসুখী হইনি
দিনে হেসেখেলে থাকি, রাত্রে ঘুমাই
আমার পাচক এসে রেঁধে দেয় সুপ্রিয় আহার
শরীর নিজেকে ধোয়, নিজেকে সারায়
আমার যাবৎ কাজ সফলতা পায়