Bhashanagar

তাপস চক্রবর্তী

জন্ম ১৯৭৪
পেশা- ইঞ্জিনিয়ার
প্রকাশিত গ্রন্থ- কবি ও ঈশ্বর, জলমুখোশ ও সন্ধের কবিতাগুচ্ছ, ক্রুসেডর

ভ্রমণ

অসংখ্য মানুষ ঘোরে।
তাদের অজস্র সাঙ্কেতিক ভাষা
বিদেশি নাবিক বোঝে চোখে চোখে
সমুদ্রপিপাসা।

আছড়ে পড়ছে ঢেউ।
মাঝিদের বুকে গর্ত। লবণের খাদ।
ঘোর লেগে নুলিয়ারা ডোবে।
ডুবে যায়। ভাসে আর্তনাদ।

আজানের ঘন্টা বাজে। ঘরে ফেরে দরিদ্র নমাজী।
হারায় সঙ্কেতভাষা। বিপন্ন জাহাজী ।

 

সঙ্গম

ধোঁওয়া ওঠে। পাক খেয়ে ধোঁওয়া চলে যায় দূর।
ছায়ার আড়ালে শঙ্খে লগ্ন মত্ত শঙ্খচূড়।

শ্বাস শিস শব্দে কাঁপে অশ্ব শিঁরদাড়া
বৃষ্টি নামে। বান ডাকে শস্যের ইশারা।

ওপরে জ্বলছে একা প্রবীণ আকাশ
মেঘ লেগে ভিজে যায় ভগ্ন বুড়ো ঘাস।

কে দেখেছে? কারা বলে সাধু সাবধান?
শ্রী অঙ্গে কীর্তনবোল তিলোত্তমা গান।

আলোতে তফাৎ স্পষ্ট প্রেম প্রতারণা
বিস্মিত বাতাসে দোলে শঙ্খচূড়ফণা!

বিরাট হাঁ মুখ দণ্ডমুণ্ড গিলে খায়
সে সঙ্গম শীৎকারে পৃথিবী ফুরায়।

 

প্রহর

আতঙ্কে প্রহর থামে। ঘামে রোমকূপ।
সারারাত রক্ত ঝরে। সারাপাড়া চুপ।
অন্ধকারে ভেসে যায় গুচ্ছ গূঢ় চুল,
আলোতে ঝলসে ওঠে চপার ত্রিশূল।
জোড়ালো আঘাতে নামে নরম কলিজা,
সারারাত রক্ত ঝরে। সারাপাড়া ভিজা।

Bhashanagar