রোবের্তো বোলানিও

6985
26333


রোবের্তো বোলানিও

এনরিকে মার্তিন

একজন কবি সবকিছু সহ্য করতে পারে। এর মানে হলো একজন সাধারন মানুষ সবকিছু সহ্য করতে পারে কিম্বা নাও পারে, কিন্তু একজন কবিকে সবকিছু সহ্য করতেই হবে। এই বিশ্বাস নিয়েই বেড়ে উঠেছিলাম আমরা। এই কথাটা একদিক থেকে সত্যি কিন্তু এরকম জীবন কাটাতে গেলে ধ্বংস, পাগলামো, মৃত্যুর মুখোমুখি হতেই হবে।

বার্সেলোনায় যাওয়ার কয়েক মাস পরেই এনরিকে মার্তিনের সঙ্গে আমার আলাপ হয়েছিল। আমার মতো সেও ১৯৫৩ সালে জন্মেছিল আর আমার মতো সেও কবিতা লিখত। কাস্তিলিয়ান আর কাতালান ভাষায় কবিতা লিখত এনরিকে। কিছুটা আলাদা হলেও দুটো ভাষার ব্যবহার একই রকম ছিল। ওর কাস্তিলিয়ান কবিতাগুলো খুব ভাবালু, আবেগময় এবং বেশিরভাগ সময়েই বেশ জগাখিচুড়ি টাইপের হতো। খুব বেশি নিজস্বতা ছিল না ওর কবিতায়। মিগুয়েল এরনান্দেখের খুব ভক্ত ছিল এনরিকে। মিগুয়েল এরনান্দেখ নিজে খুব ভালো কবি ছিলেন কিন্তু খুব খারাপ কবিতা যারা লিখত তারাই ওনার বেশি ভক্ত (আমার বক্তব্যটা খুব সোজা, এরনান্দেখের কবিতায় দুঃখ- কষ্ট ব্যাপারটা খুব বেশি থাকত আর খারাপ কবিরা তাদের অল্প বয়সে ল্যাবরেটরির জন্তুদের মতোই দুঃখ- কষ্ট পেত। তাই তারা ওনার কবিতা খুব পছন্দ করত।) ছিল। ওর কাতালান ভাষায় লেখা কবিতাগুলো অবশ্য তুলনামূলক ভাবে একটু ভালো ছিল। সত্যি ঘটনা কিম্বা প্রতিদিনের জীবনযাপন নিয়ে কবিতাগুলো লিখত এনরিকে। আর বন্ধুদেরকেই একমাত্র পড়াত সে। (অবশ্য কাস্তিলিয়ানে ও যা কবিতা লিখত, সেগুলিও এমনসব ছোটখাটো ম্যাগাজিনে ছাপা হতো যে আমার মনে হয় ওর বন্ধুবান্ধব ছাড়া কেউ সেগুলি পড়ত না আর কাতালান কবিতাগুলি ও আমাদের বারে বসে পরে শোনাত)। এনরিকের কাতালানও খুব একটা সুবিধার ছিল না (ওর অনেকগুলি ব্যাপারের মধ্যে এটাও আমি বুঝতাম না যে অন্য একটা ভাষা, যেটাতে ওর খুব ভালো দখল নেই, সেটাতে ও ভালো কবিতা লিখত কি করে)। কাতালান, ব্যকরণের খুঁটিনাটি বিষয়গুলি ও ভালো মতো জানত না। মোদ্দা কথা কাস্তিলিয়ান বা কাতালান কোন ভাষাতেই ভালোমত লিখতে পারত না এনরিকে। তবে ওর কয়েকটা কবিতা আমার মনে আছে। আবেগ, নস্টালজিয়া ছিল কবিতাগুলিতে। আমার অল্প বয়সের কথা মনে পড়ে যায়। এনরিকে চেয়েছিল যে ও একজন বড় কবি হবে আর খুব চেষ্টাও চালিয়েছিল সেজন্য। কোন সমালোচনার তোয়াক্কা না করে অন্ধের মতো খাটত। মনে হতো হলিউডের সিনেমাগুলোতে ভিলেনরা মাছির মতো পড়ছে কিন্তু  হিরোর গুলি খাওয়ার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। শেষমেশ অবশ্য ওর এই খাটনি কিছুটা কাজে এসেছিল। একটা আলোর বৃত্ত তৈরি হয়েছিল হয়েছিল ওর চারদিকে যেটা বাচ্চা কবি আর বুড়ি বেশ্যারাই শুধু পছন্দ করত।

আমার তখন পঁচিশ বছর বয়স ছিল আর মনে হতো জীবনের সবকিছুই আমার দেখা হয়ে গিয়েছে। এনরিকে কিন্তু একদম উল্টোটা ভাবত। ও মনে করত জীবনে অনেককিছু করতে হবে ওকে। প্রথম যে কাজটা ও করল, সেটা হল একটা লিটল ম্যাগাজিন বের করবে বলে ঠিক করল। নিজের জমানো পয়সা দিয়েই ম্যাগাজিনটা বের করার কথা ভাবল (পনের বছর বয়স থেকেই পোর্ট- এর কাছে কোন একটা অফিসে কাজ করত ও)। শেষ মুহূর্তে অবশ্য এনরিকের কয়েকজন বন্ধু (ওদের মধ্যে আমার এক বন্ধুও ছিল) ঠিক করেছিল যে প্রথম সংখ্যাতে আমার কবিতা ছাপবে না। আমার বলতেও খুব লজ্জা লাগে যে ঘটনাটার পর আমাদের বন্ধুত্বও একটু টাল খেয়ে গিয়েছিল। এনরিকে অবশ্য বলত যে এটা চিলের ঐ বন্ধুর জন্যই ঘটেছিল। সেই বলেছিল যে একই লিটল ম্যাগাজিনে দুজন চিলের কবির কবিতা বেমানান লাগবে। তাই সে আমার কবিতা বাদ দিয়েছিল। যা হোক, তখন আমি পর্তুগালে ছিলাম। ফিরে এসে আমার খুব প্রেস্টিজে লাগল। আমি ঠিক করলাম ঐ ম্যাগাজিনের সঙ্গে কোন সম্পর্ক রাখাটা ঠিক হবে না আমার পক্ষে। ওর কোন অজুহাত আমি কানে তুললাম না। ম্যাগাজিনটা থেকে আমি সরে আসলাম।

মাঝে ওর সঙ্গে বেশ কিছুদিন দেখা হলো না। অবশ্য গথিক কোয়ার্টারের বারগুলিতে মাঝেমধ্যেই চেনাশোনা কারও সঙ্গে দেখা হতো আর ওর খবর শুনতাম। ওদের কাছেই শুনলাম যে ম্যাগাজিনটা (যেটার নাম রেখেছিল ‘হোয়াইট রোপ’, আমি নিশ্চিন্ত যে ওটা অন্য কেউ ঠিক করে দিয়েছিল) প্রথম সংখ্যার পর আর বের হয় নি, শুনলাম নো বারিস জেলার কালচারাল সেন্টারে একটা নাটক করে লোকের টিটকিরি শোনার পর ও এখন আবার একটা ম্যাগাজিন শুরু করার কথা ভাবছে।

একরাতে আমাকে শোনানোর জন্য ও ফাইল ভর্তি কবিতা নিয়ে আমার ফ্ল্যাটে এসে হাজির হলো। আমরা ডিনার করতে ক্যালে কোস্তার একটা রেস্তোরাঁয় গেলাম। ওখানে ও কয়েকটা কবিতা পড়ল। অদ্ভুত একটা আত্মতৃপ্তি আর ভয় নিয়ে ও আমার মন্তব্যর জন্য বসে থাকল। আমার মনে হলো যে আমি যদি ওকে বলি কবিতাগুলো খারাপ হয়েছে তাহলে ও আর কোনদিন আমার কাছে আসবে না। আর ফালতু তর্কের মধ্যে নিজেকে জড়াতেও ইচ্ছে করছিল না। আমি ওকে বললাম যে কবিতাগুলো খুব ভালো লেখা হয়েছে। কোন সমালোচনা করছি, এটা যেন ও ভেবে বসে সেদিকে খেয়াল রেখেই কথাটা বললাম ওকে। এমনকি বললাম, যে একটা কবিতা শুনে তো আমার লিওন ফেলিপের এক্সতেরেমাদুরা নিয়ে লেখা নস্টালজিক কবিতাটার কথা মনে পড়ে গেল। এনরিকে কোনদিন ওখানে যায় নি আর আমি ঠিক বুঝে উঠতে পারলাম না যে ও আমার কথাটা বিশ্বাস করল কি না! ও জানত যে আমি স্যাঙ্গুইনেত্তি পড়েছি আর কিছুটা হলেও (খুব বেশি মাত্রায় না) আধুনিক ইতালিয়ান কবিতা পছন্দ করি। তাই এক্সতেরেমাদুরা নিয়ে লেখা কবিতাগুলো নিয়ে প্রশংসা করা আমার পক্ষে সম্ভব না। কিন্তু ও ভান করল যে আমার কথা বিশ্বাস করেছে ও। বেশ খুশি খুশি ভাব নিয়ে ম্যাগাজিনটার কথা বলতে শুরু করল যেটা প্রথম সংখ্যার পর আর বের হয় নি। আমি ভালমতোই বুঝলাম যে ও আমার কথা বিশ্বাস করে নি।

তারপর আমরা স্যাঙ্গুইনেত্তি আর ফ্রাঙ্ক ও হারা-কে নিয়ে কথা বললাম (ফ্রাঙ্ক ও হারা-কে আমার এখনও ভালো লাগে কিন্তু স্যাঙ্গুইনেত্তিকে লেখা অনেকদিন আগেই পড়া ছেড়ে দিয়েছি), নতুন ম্যাগাজিনের কথা (কিন্তু একবারও আমাকে লেখার কথা বলল না) হলো। তারপর আমার ফ্ল্যাটের সামনের রাস্তায় ওকে ছেড়ে চলে এলাম। দু’এক বছরের মধ্যে ওর সঙ্গে আর দেখা হয়নি আমার।

সেসময় একজন মেহিকান মহিলার সঙ্গে থাকতাম আমি। এত ঝগড়া হতো আমাদের যে সবাই মনে করত ঝগড়া করতে করতেই মরবো আমরা। আর আমাদের থামাতে গিয়ে প্রতিবেশী এবং আত্মীয়স্বজনরাও মারা পড়বে। একবার কেউ আমাদের সঙ্গে দেখা করতে এলে দ্বিতীয়বার আসত না। টাকাকড়ি একদম ছিল না আমাদের (যদিও ও বেশ বড়লোকের মেয়ে ছিল কিন্তু বাড়ি থেকে কোন সাহায্য ও নিত না), হোমারের যুদ্ধের মত চলত আমাদের ঝগড়াঝাঁটি, সবসময় একটা কালো মেঘ ঝুলে থাকত ঘরের ভেতর।

এরমধ্যে একদিন এনরিকে একটা ওয়াইনের বোতল আর ফ্রেঞ্চ প্যাটি নিয়ে হাজির হোল। দরজা খুলে ওকে দেখেই আমার কেন জানিনা মনে হলো, আমাদের যুদ্ধের শেষ দেখতে এসেছে (যদিও ওকে দেখে খুশিই হলাম যে আমার বান্ধবী ওকে দেখে ক্ষেপে যাবে ) ও। কিন্তু পড়ে যখন ও আমাদের ওর ফ্ল্যাটে যাওয়ার জন্য নেমন্তন্ন করল আর ওর বান্ধবীর সঙ্গে আলাপ করিয়ে দেবে বলল, তখন আমি বুঝতে পারলাম ও আসলে আমাদের দেখতে নয়, নিজেকে দেখাতে এসেছে আমাদের এখানে অথবা এমনটাও হতে পারে আমার মতামত ও এখনও পছন্দ করে। আমার বেশ বিরক্তিই লাগল। একে তো ওর হুট করে চলে আসাটা আমার আর ভালো লাগছিল না, এছাড়া তখন সবকিছুতেই আমার খুব বিরক্তি লাগত। লোকজন আমাকে এড়িয়ে চলত। তাই আমিও সবাইকে এড়িয়ে চলতাম। কিন্তু এনরিকে বারবার ওর ওখানে যাওয়ার কথা বলতে লাগল আর কেন জানিনা মেহিকান মহিলারও ওকে খুব পছন্দ হলো। শেষপর্যন্ত গেলাম ওর ওখানে। বার পাঁচেক একসঙ্গে খাওয়া দাওয়া করেছিলাম আমরা।

খুব স্বাভাবিকভাবেই আমাদের বন্ধুত্বটা আবার জোড়া লাগল- জোড়া লাগল বললে অবশ্য একটু বাড়াবাড়ি হয়ে যাবে কারন প্রায় সব বিষয়েই আমাদের মতের অমিল হতো। ওর ফ্ল্যাটটা (আমাদের কথাবার্তা বন্ধ হয়ে যাওয়ার পরেও ও অনেকদিন ওর বাবা- মায়ের সঙ্গে থাকত, পড়ে শুনেছিলাম ও তিনজন বন্ধুর সঙ্গে মেস করে থাকে, আমি অবশ্য কোনদিন যাইনি ওখানে) দেখে আমি খুব অবাক হয়ে গিয়েছিলাম। বারিও দা গারসিয়াতে ওর ফ্ল্যাটটা বেশ বড়সড় ছিল। চারদিকে বই, ছবি আর রেকর্ড সাজানো ছিল। ওর বান্ধবীই মনে হয় সবকিছু সাজিয়ে রাখত। বেশ কিছু অদ্ভুত জিনিসপত্র ছিল ওর ওখানে। বুলগেরিয়া, টার্কি, ইসরায়েল আর ইজিপ্টে বেড়াতে গিয়ে ওরা ঐসব নিয়ে এসেছিল।  স্যুভেনির বলতে যা বোঝায় সেরকম ছিল না সেসব। তবে আমি সবচেয়ে বেশি অবাক হলাম, যখন ও সবার সামনে বললো যে ও কবিতা লেখা ছেড়ে দিয়েছে! খাবার টেবিলে আমার বান্ধবীর সামনে কথাটা বললেও (আমি তখন একটা বড় আরবি ছোরা খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে দেখছিলাম, যেটার ফলার দুপাশেই নকশা করা ছিল। কোন কাজে নিশ্চয়ই আসত না ছোরাটা।) আমাকে উদ্দেশ্য করেই কথাটা বলল এনরিকে। ওর মুখের হাসিটা দেখে আমার মনে হচ্ছিল যেন ও বলতে চাইছে, ও সব বুঝে গিয়েছে। নিজেকে বোকা না বানিয়ে, লেখক হওয়ার ভান না করেও শিল্প- সাহিত্যকে ভালোবাসা যায়, এটা ও বুঝে গিয়েছে।

ওর কথা শুনে মেহিকান মহিলাটি (খুব তাড়াতাড়ি ও খুঁত খুঁজে পেত) ভেবে নিল যে  এনরিকের কবিতা লেখা ছেড়ে দেওয়াটা ঠিক হয় নি এবং ওকে ঐ ম্যাগাজিনের গল্পটা বলতে বাধ্য করল যেটায় আমার কবিতা ছাপা হয়নি। গল্পটা শুনে ও মতামত দিল যে এনরিকে তার ত্যাগের পেছনে যুক্তিগুলো ভালমত সাজাচ্ছে আর বলল, খুব বেশিদিন হওয়ার আগেই নতুন উৎসাহ নিয়ে আবার লেখায় ফিরে আসবে ও। এনরিকের বান্ধবীও ওর এই কথাগুলো পুরোপুরি না হলেও কিছুটা সমর্থন করল। দুজন মহিলাই মনে করছিল (ওর বান্ধবী অবশ্য খুব সঙ্গত কারনেই আমার বান্ধবীর ব্যাপারটা ভাবছিল) যে ওর চাকরিতে মনোযোগ দেওয়া- প্রোমোশন হয়েছিল ওর যার জন্য ওকে কার্তাজেনা আর মালাগাতে যেতে হতো যেটা সম্বন্ধে আমি আর খুব বেশি কিছু জানতে চাইলাম না- বাকি সময়টা ঘরে কাটানো, রেকর্ড আর গাড়ির পেছনে দেওয়াটা লিওন ফেলিপে আর স্যাঙ্গুইনেত্তিকে নকল করে সময় নষ্ট করার চাইতে অনেক বেশি কাব্যিক। ও আমার মতামত জানতে চাইলে (যেন ও কবিতা লেখা ছেড়ে দেওয়ায় কাতালান আর কাস্তিলিয়ান কবিতার সর্বনাশ ঘটে যাচ্ছে) আমি খুব বেশি কিছু বললাম না ওকে। শুধু বললাম যে সঠিক সিদ্ধান্তই নিয়েছে ও। কিন্তু বুঝলাম যে ও আমার কথা বিশ্বাস করল না!

সেই রাতেই বা অন্য কোনও চারটে ডিনারের একটাতে বাচ্চাকাচ্চা নিয়ে কথা উঠল। এটা অবশ্য খুব স্বাভাবিক ব্যাপার। কবিতা আর সন্তান- সন্ততি। আমার মনে পড়ছে (স্পষ্টভাবেই মনে পড়ছে) যে এনরিকে বাচ্চা নেওয়ার কথা বলছিল। মানে কোন মহিলার পেটে বাচ্চাটা হবে না! ওর পেটেই বাচ্চাটা নয় মাস থাকবে। বাচ্চা হওয়ার অভিজ্ঞতাটা ও পেতে চায়! আমার মনে আছে ও যখন কথাগুলো বলছিল আমার হাত- পা ঠান্ডা হয়ে যাচ্ছিল। খুব নরম করে মহিলা দুজন ওর দিকে তাকিয়ে ওর কথা শুনছিল। কিন্তু আমি টের পাচ্ছিলাম যে ওর কথাগুলো শুনেই আমি ঠাণ্ডা হয়ে যাচ্ছি। অনেক বছর পর ওরকম হয়েছিল। একটা তীব্র জ্বালা- কিছুক্ষনের জন্য ব্যাস! এনরিকের কথাটা আমাকে এমনভাবে বিঁধল যে আমি কিছু বলতে পারলাম না! চারজনের মধ্যে তিনজনই বাচ্চাকাচ্চা চাইছিল। একমাত্র আমিই চাইছিলাম না। কিন্তু জীবন এমনই একটা নোংরা আর রহস্যময় জিনিস! আমারই একমাত্র সন্তান আছে!

শেষ যেদিন আমরা একসঙ্গে ডিনার করছিলাম, (মেহিকান মহিলাটির সঙ্গে আমার সম্পর্কটা তখন একদম খাদের কোনায় চলে গিয়েছিল) এনরিকে একটা ম্যাগাজিনের কথা বলল যেটাতে ও লিখেছিল। যাক শুরু হল, আমি ভাবতে ভাবতেই ও বলল, ‘ঐ ম্যাগাজিনে আমরা দুজনেই লিখতাম’। ‘আমরা’- শব্দটা শুনে আমি ঘাবড়ে গেলাম! পড়ে বুঝলাম যে আমরা বলতে ও নিজের বান্ধবী আর ওর কথা বলছে। আমি আর মেহিকান মহিলা দুজনে একসঙ্গে (শেষবারের মতো ) ম্যাগাজিনটা দেখতে চাইলাম। ও ম্যাগাজিনটা নিয়ে এল। স্ট্যান্ডে যে সব পাতি ম্যাগাজিনগুলো পাওয়া যায়, ইউ.এফ.ও থেকে ভুতের গল্প, কলম্বিয়ার আদিম কোন জনজাতির খোঁজখবর আর দুনিয়ার আজগুবি খবরে ঠাসা থাকে যেগুলো, ওরকমই একটা ম্যাগাজিন। ‘কোয়েশ্চনস অ্যান্ড আন্সারস’- নাম ছিল ম্যাগাজিনটার। আমার মনে হয় ওটা এখনও বের হয়। আমি জিজ্ঞেস করলাম- আমরা দুজনেই জিজ্ঞেস করলাম যে ওরা কি লিখত ওখানে। এনরিকে (ওর বান্ধবী ডিনারের সময় একটা কথাও বলেনি সেদিন ) বলল যে উইক এন্ড গুলিতে ওরা ঐসব জায়গায় চলে যেত যেখানে ফ্লাইং সসার দেখা গিয়েছে। ওখানে গিয়ে ওরা লোকজনের ইন্টারভিউ নিত, আশেপাশে সবকিছু খুঁজে দেখত, গুহাগুলিও (সেই রাতেই এনরিকে বলল যে কাতালোনিয়ার পাহারগুলিতে অনেক গুহা আছে) দেখত, তারপর রাতে ক্যামেরা নিয়ে স্লিপিং ব্যাগের ভেতরে বসে থাকত। বেশিরভাগ সময়ে ওরা দুজনেই যেত, কখনও আবার পাঁচ- ছয় জনের দল নিয়ে বাইরে রাত কাটাত এনরিকে আর ওর বান্ধবী। ফিরে এসে একটা রিপোর্ট লিখত যেটার একটা অংশ ছবিসহ (বাকিটা কোথায় কে জানে!)  ‘কোয়েশ্চনস অ্যান্ড আন্সারস’-এ ছাপা হয়েছিল।

ডিনারের পর আমি এনরিকে আর ওর বান্ধবীর লেখা কয়েকটা আর্টিকেল পড়লাম। খুব বাজে- বোকা বোকা ছিল লেখাগুলি। একটা ছদ্ম বৈজ্ঞানিক ভাব, অকারণে বারবার শুধু সায়েন্স শব্দটা ব্যবহার করা হয়েছিল। আমার কেমন লেগেছে, ও জানতে চাইল। আমার মতামতে যে ওর কিছু যায় আসে না, সেটা আমি ভালো করেই বুঝে গিয়েছিলাম। তাই কোন রাখঢাক না রেখেই বললাম যে লেখাটার অনেক কিছু পাল্টাতে হবে, ওর আরও অনেক কিছু শিখতে হবে। ম্যাগাজিনটার আদৌ কোন সম্পাদক আছে কিনা, এটাও জিজ্ঞেস করলাম ওকে।

ওর ফ্ল্যাট থেকে বের হয়ে আমি আর আমার মেহিকান বান্ধবী, দুজনেই খুব হাসাহাসি করলাম। ঐ সপ্তাহের শেষেই আমাদের ছাড়াছাড়ি হয়ে গিয়েছিল। ও রোমে চলে গিয়েছিল আর আমি বছর খানেকের জন্য বার্সেলোনাতেই থেকে গিয়েছিলাম।

তারপর অনেকদিন এনরিকের কোন খবর পাইনি আমি। মনে হয়, ওর কথা ভুলেই গিয়েছিলাম আমি। গিরোনার কাছে একটা গ্রামে পাঁচটা বেড়াল আর একটা কুকুর নিয়ে (যদিও ওটা মেয়ে কুকুর ছিল) থাকতাম তখন। বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে খুব একটা দেখা হতো না আমার। মাঝেমধ্যে কেউ দু’এক দিনের জন্য আসত। আর কেউ এলেই শেষ পর্যন্ত বার্সেলোনা কিম্বা মেহিকোর বন্ধুদের নিয়েই বেশি গল্প হতো। কিন্তু আমার মনে পড়ে, এনরিকেকে নিয়ে কেউ কোনদিন কিছু বলেনি। আমি দিনে একবার কুকুরটা আর বেড়ালগুলিকে নিয়ে খাবার কিনতে বাজারের দিকে যেতাম আর পোস্টঅফিসে গিয়ে আমার কোন চিঠি আছে কিনা খোঁজ নিতাম। বেশিরভাগ সময়েই মেহিকো সিটি থেকে আমার বোনের চিঠি পেতাম। জায়গাটা একদম পাল্টে গিয়েছে, শুনতাম। আর অন্য চিঠি বলতে মাঝেমধ্যে লাতিন আমেরিকার বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা কবি বন্ধুদের চিঠি আসত। যেগুলির উত্তরে আমি হাবিজাবি, খিটখিটে, মন খারাপ করা কথাবার্তা লিখতাম। চিঠিগুলি আমার মতোই হতো, বয়স ফুরিয়ে আসা, স্বপ্ন শেষ হয়ে আসা মানুষের মতো।

একদিন একটা অদ্ভুত চিঠি পেলাম। ঠিক চিঠি না! আমার প্রথম উপন্যাসটার প্রকাশকের দেওয়া একটা ককটেল পার্টির (যে পার্টিটাতে আমি যাইনি) কার্ডের পেছনে কেউ একটা ম্যাপ এঁকে পাঠিয়েছিল যেটার পাশে আবার এই নম্বরগুলি লেখা ছিলঃ

৩৮৬০ + ৪২৯৭৭ – ৪৬৯৯৩? + ৫১১৭৯-৫৮৮৯০৪ + ৯৬৬ – ৩৯১৪৬ + ৪৯৮৮২০৭৮৫৬

আর খুব স্বাভাবিকভাবেই যে কার্ডটা পাঠিয়েছিল তার নাম কোথাও লেখা ছিল না। প্রকাশকের দেওয়া পার্টিতে সে গিয়েছিল, এটুকু বোঝা যাচ্ছিল। আমি নম্বরগুলি থেকে কিছু উদ্ধার করার চেষ্টা করলাম না। তবে মনে হচ্ছিল, বাক্যটাতে আটটি শব্দই থাকবে। আমার কোন বন্ধুই এটা করেছিল। রহস্যজনক কিছুই মনে হচ্ছিল না আমার। তবে ম্যাপটা বেশ অদ্ভুত ছিল। একটা আঁকাবাঁকা রাস্তা, একটা বাড়ির পাশে একটা গাছ, দুদিকে ভাগ হয়ে যাওয়া একটা নদী, ব্রিজ, একটা ছোট পাহাড় কিম্বা ঢিবি, একটা গুহা। ছবিটার একদিকে কম্পাস এঁকে উত্তর- দক্ষিন দিকও বোঝানো ছিল। রাস্তার পাশে পাহাড়টার উল্টোদিকে (আমার মনে হচ্ছিল, শেষ প্রান্তে আর একটা পাহাড় ছিল) একটা তীর চিহ্ন দিয়ে আম্পুরদানের একটা গ্রামে যাওয়ার রাস্তা আঁকা ছিল।

রাতে, আমি যখন খাবার বানাচ্ছিলাম, আমার হঠাৎ মনে হলো, এটা এনরিকের কাজ। আমি কল্পনা করার চেষ্টা করলাম যে ও একটা ওয়াইনের গ্লাস হাতে নিয়ে পার্টিতে ঘুরে বেড়াচ্ছে, আমার বন্ধুদের (ওদের মধ্যেই কেউ একজন এখানকার ঠিকানা ওকে দিয়েছে) সঙ্গে কথা বলছে, সবার সঙ্গে যেচে কথা বলছে, আমার উপন্যাসটার সম্বন্ধে খারাপ কথাই বলছে সবাইকে, জোরে জোরে জিজ্ঞেস করে জানতে চাইছে যে আমি আদৌ পার্টিতে আসব কিনা! কথাগুলো ভাবতে ভাবতে আমার খুব রাগ হলো ওর ওপর। অনেক পুরনো হলেও ‘হোয়াইট রোপ’ ম্যাগাজিন থেকে বাদ যাওয়ার কথাটা আবার মনে পড়ল।

এক সপ্তাহ বাদে আমি আবার ওরকম একটা চিঠি পেলাম। বই প্রকাশের পার্টির কার্ডের (আমার মনে হয় অনেকগুলো কার্ড ও জোগাড় করেছিল)ওপরেই ছিল সেটাও। কিন্তু একটু আলাদা ছিল এবারের চিঠিটা। আমার নামের নীচে মিগেল এরনান্দের সুখ আর কাজের ওপর একটি উক্তি লেখা ছিল। উল্টোদিকে ঐ নম্বরগুলিই লেখা ছিল আর একটি অন্য ম্যাপ আঁকা ছিল। প্রথমে তো আমি ম্যাপটার মধ্যে আঁকা হিজিবিজি ছবি, বিস্ময়চিহ্ন, কাটাকুটি আর ডট দেওয়া দাগগুলি দেখে প্রথমে কিছু বুঝতেই পারছিলাম না। বারবার দেখার পর এবং আগের কার্ডটার সঙ্গে কিছুক্ষন মেলানোর পর বুঝতে পারলাম, ওটা আগের কার্ডটার ম্যাপটারই পরের অংশ। একটা গুহার ম্যাপ আঁকা হয়েছে এখানে।

আমার মনে হলো, এইসব ইয়ার্কি ফাজলামো করার বয়স আমাদের আদৌ নেই। একদিন বিকেলে আমি ম্যাগাজিনের দোকান থেকে একটা ‘কোয়েশ্চন্স অ্যান্ড আন্সারস’ কিনলাম। কিন্তু ওর মধ্যে কোথাও এনরিকে মার্তিনের নাম দেখতে পেলাম না। দিন কয়েক পর আমি ব্যাপারটা ভুলেই গেলাম।

এরমধ্যে তিন- চার মাস কেটে গেল। এক রাতে আমি বাড়ির বাইরে একটা গাড়ি থামার আওয়াজ পেলাম। আমার মনে হলো কেউ হয়ত রাস্তা হারিয়ে ফেলে চলে এসেছে এখানে। আমি কুকুরটাকে নিয়ে বাইরে বের হলাম। গাড়িটা একটা ঝোপের কাছে দাঁড়িয়েছিল। এঞ্জিনটা চালানোই ছিল আর হেডলাইট জ্বলছিল। কিছুক্ষন ওভাবেই থাকল গাড়িটা। আমি যেখানে দাঁড়িয়ে ছিলাম সেখান থেকে বোঝা যাচ্ছিল না যে গাড়ির ভেতর ক’জন আছে! কুকুরটা সঙ্গে থাকাতে আমি ভয় পাচ্ছিলাম না। কুকুরটা খুব জোরে চিৎকার করছিল আর আমার হাত থেকে ছুটে গিয়ে গাড়িটার দিকে যাওয়ার চেষ্টা করছিল। কিছুক্ষণ পর গাড়ির এঞ্জিনটা বন্ধ হয়ে গেল, লাইটও নিভে গেল। তারপর গাড়ি থেকে যে নেমে এল, সেটা সত্যিই অবাক করার মতো। এনরিকে  মার্তিন! প্রথমেই ও আমাকে জিজ্ঞেস করল যে আমি ওর চিঠিগুলি পেয়েছি কিনা! আমি ওকে হ্যাঁ বলাতে ও আবার জিজ্ঞেস করল যে খামগুলি ঠিকঠাক ছিল কিনা। খামগুলি ঠিক ছিল বলার পর ওকে জিজ্ঞেস করলাম যে সব কেমন চলছে? এনরিকে দূরে পাথরের একটা খাদানের আলোর দিকে তাকিয়ে বলল যে সমস্যায় আছে ও। আমি ওকে ভেতরে যাওয়ার কথা বললাম। কিন্তু ও আমার কথা কানে তুলল না। দূরে যে আলো জ্বলছিল আর লোকজন কথাবার্তা বলছিল, সেটার ব্যাপারে জানতে চাইল। আমি ওকে পাথরের খাদান সম্বন্ধে বললাম, এটাও বললাম যে বছরের একটা সময়ে যে কেন ওখানে রাত জেগে কাজ হয় সেটাও আমি বুঝতে পারি না। এনরিকেও বেশ অবাক হল। আমি ওকে আবার ভেতরে যেতে বললাম। কিন্তু ও নড়ল না। এমন ভাব করল যে আমার কথাটা ওর কানেই যায় নি। আমি তোমাকে বিরক্ত করতে চাইনা। আমার কুকুরটা একবার শুঁকে গেল ওকে। আমি ওকে আবার বললাম, ভেতরে চলো, ঘরে বসে মদ খাবো। না, না আমি অ্যালকোহল খাইনা একদম। আমি ভেবেছিলাম, তুমি সেদিন তোমার বই বেরনোর পার্টিতে যাবে! এনরিকে বলল। না, আমার যাওয়া হয়নি। কথাটা ওকে বলেই আমার মনে হলো যে এবার হয়তো ও আমার বইটা নিয়ে সমালোচনা শুরু করবে। কিন্তু ও আমাকে বলল যে ওর একটা জিনিস আমি সাবধানে রাখতে পারব কিনা! আমি তাকিয়ে দেখলাম ওর হাতে একটা প্যাকেট। প্যাকেটটাতে মনে হলো এ-ফোর কাগজ আছে কিছু। আমি মনে মনে ভাবলাম, এনরিকে নিশ্চয়ই আবার কবিতা লিখতে শুরু করেছে! ও আমার মনের কথাটা বোধহয় বুঝতে পেরেছিল। অদ্ভুত ভাবে হেসে বলল, না কবিতা না! ওরকমভাবে হাসতে আমি ওকে অনেকদিন দেখিনি। তাহলে কি ? আমি জিজ্ঞেস করাতে ও বলল, সেরকম কিছু নেই কাগজগুলিতে। তোমার পড়ার দরকার নেই। শুধু সাবধানে রেখে দিও। আমি ওকে ভেতরে যেতে বললাম। কিন্তু ও বলল, আমি আর তোমাকে বিরক্ত করতে চাইনা আর এখনই বেরিয়ে যেতে হবে আমাকে। আমি ওকে জিজ্ঞেস করলাম যে এখানকার ঠিকানাটা ও কি করে জানল! ও সেই চিলের বন্ধুটির কথা বলল যার জন্য হোয়াইট রোপের প্রথম সংখ্যাটা থেকে আমার কবিতা বাদ গিয়েছিল। আমি বেশ অবাক হয়েই গেলাম যে আমার ঠিকানাটা ও দিয়েছে এনরিকেকে। তোমাদের মধ্যে এখন আর যোগাযোগ নেই! এনরিকে জিজ্ঞেস করল আমাকে। আমি ওকে বললাম যে ওর সঙ্গে আমার দীর্ঘদিন কোন যোগাযোগ নেই। যাহোক ওর জন্যই তোমার সঙ্গে দেখা হলো আমার। খুব ভালো লাগছে দেখা করতে পেরে, এনরিকে বলল। আমার ওকে বলা উচিত ছিল যে ওর সঙ্গে দেখা হয়ে আমারও ভালো লাগছে। কিন্তু আমি কোন কথা না বলে চুপচাপ দাঁড়িয়ে থাকলাম। ঠিক আছে, বেরোচ্ছি আমি। এনরিকে বলল। খাদানের দিক থেকে হঠাৎ খুব চেঁচামিচি আর বিস্ফোরণের আওয়াজ শোনা যাচ্ছিল। এনরিকে খুব ঘাবড়ে গেল আওয়াজটা শুনে। আমি ওকে ঘাবড়াতে না করলাম। কিন্তু রাতে আমি কোনদিন বিস্ফোরণের আওয়াজ শুনিনি আগে। চললাম আমি। এনরিকে বলল। আমি ওকে সাবধানে এসো বলতেই ও আমাকে বলল, তোমাকে একবার জড়িয়ে ধরবো? অবশ্যই, আমিই এগিয়ে গেলাম। ও আমাকে জিজ্ঞেস করল কুকুরটা কামড়াবে না কি? আমি ওকে বললাম যে এটা মেয়ে কুকুর আর কামড়ায় না কুকুরটা কাউকে।

আরও বছর দুয়েক ঐ গ্রামে থাকার সময় আমি এনরিকের কথাটা রেখেছিলাম। ওর প্যাকেটটা আমি আমার নিজের কাগজপত্র আর পুরনো ম্যাগাজিনের সঙ্গে যত্ন করে দড়ি আর সেলোটেপ দিয়ে বেঁধে রেখেছিলাম। এনরিকের খবর একদিন চিলের ঐ বন্ধুটির কাছ থেকে পেলাম, যার জন্য হোয়াইট রোপ থেকে আমার কবিতা বাদ গিয়েছিল। সেদিন সে আমাকে ঘটনাটার পেছনে তার ঠিক কি ভূমিকা ছিল সেটা বলছিল। আমার অবশ্য ঐ পুরনো ব্যাপারটা নিয়ে কোন উৎসাহ ছিল না আর! ঐসব কথা বলতে বলতেই ও এনরিকের কথা বলল। বারিও দে গারসিয়াতে পুরনো ফ্ল্যাটের কাছে যেখানে আমি আমার মেহিকান বান্ধবীকে নিয়ে বেশ কয়েকবার গিয়েছিলাম সেখানেই এনরিকে একটা বইয়ের দোকান দিয়েছিল। এনরিকে আর ওর বউয়ের ছাড়াছাড়ি হয়ে গিয়েছে, ওরা দুজনে কেউই আর ‘কোয়েশ্চন্স অ্যান্ড আন্সারস’-এ লেখে না। সেই বন্ধুটি আরও বলল যে ওর প্রাক্তন স্ত্রী আবার এনরিকের বইয়ের দোকানেই কাজ করে। একসঙ্গে থাকে না ওরা, স্রেফ বন্ধু। ভদ্রমহিলার কোন কাজ ছিল না বলেই এনরিকে ওকে কাজে নিয়েছিল। আমি ওকে জিজ্ঞেস করলাম যে এনরিকের বইয়ের দোকান কেমন চলছে। বন্ধুটি বলল, ভালোই চলছে ওর দোকান, আগে যেখানে চাকরি করত সেখান থেকে বেশ ভালো টাকাকড়ি পেয়েছিল ও আর দোকানের পেছনে দুটো ছোট ছোট ঘরে থাকে ও। পরে আমি দেখেছিলাম যে ঘরগুলির পেছনে আবার একটা ছোট উঠোন আছে। ওখানে এনরিকে, জেরানিয়াম, লিলি এবং ফরগেট-মি -নট গাছ লাগিয়েছিল। দোকানটার সামনে দুটো দরজা আর একটা লোহার শাটার ছিল। প্রতিদিন রাতে এনরিকে শাটারটা নামিয়ে বিল্ডিঙের ভেতরে যাওয়ার একটা ছোট দরজায় তালা লাগাত। আমি সেই বন্ধুটির কাছ থেকে এনরিকের ঠিকানাটা ইচ্ছে করেই নিলাম না, ও এনরিকে লেখালিখি করছে কিনা সেটাও জানতে চাইলাম না। কয়েকদিন পরে আমি এনরিকের কাছ থেকে একটা চিঠি পেলাম। এবার অবশ্য ও চিঠিটাতে নিজের নাম লিখেছিল আর মাদ্রিদে (আমার মনে হয় মাদ্রিদ থেকে চিঠিটা লিখেছিল ও, তবে আমি নিশ্চিত না) সায়েন্স ফিকশন লেখকদের একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলনে গিয়েছিল ও, সেটা জানিয়েছিল চিঠিতে। ‘কোয়েশ্চন্স অ্যান্ড আন্সারস’-এর সাংবাদিক হিসেবে ও ঐ সম্মেলনে (আমার যতদূর মনে পড়ছে, ও সায়েন্স ফিকশন না লিখে এস এফ লিখেছিল) গিয়েছিল। বাকি চিঠিটা জুড়ে হাবিজাবি কথা লিখেছিল ও। একজন ফরাসি লেখকের কথা লিখেছিল, যার নামটা আমার ঠিক মনে আসছে না! তিনি নাকি বলেছিলাম, আমরা নাকি সবাই ভিনগ্রহের বাসিন্দা। আমরা বলতে তিনি পৃথিবীর সব প্রাণীদের কথাই বলেছিলেন এবং সবাই বন্দিদশাতেই আছি এখানে। এনরিকে আবার যুক্তি দিয়ে লিখেছিল যে কিভাবে ঐ ফরাসি লেখক তাঁর সিদ্ধান্তে পৌঁছেছিলেন। কিন্তু আমি খুব একটা কিছু বুঝে উঠতে পারিনি। ও ‘ মগজ পুলিশ’-এর কথা লিখেছিল, ‘হাইপার টানেল’ সম্বন্ধেও কিছু একটা বুঝিয়েছিল কিন্তু ওর নিজের কবিতার মতোই ঘেঁটে দিয়েছিল সব। চিঠিটার শেষে একটা রহস্যময় লাইন লিখেছিল এনরিকে, ‘ যারা জানে তারাই বাঁচবে’। আর বিশেষ কিছু লেখা ছিলনা চিঠিটাতে। তারপর ওর কোন চিঠিও আর পাইনি আমি।

এরমধ্যে বার্সেলোনায় গিয়ে সেই চিলের বন্ধুটির সঙ্গে দেখা হলো আমার। একটা রেস্তোরাঁয় খেতে খেতে কোনো ভনিতা না করেই দুম করে সে খবরটা দিল আমাকে।

দু’ সপ্তাহ আগে মারা গিয়েছে এনরিকে। একদিন সকাল বেলায় ওর প্রাক্তন স্ত্রী মানে দোকানের কর্মচারী, দোকানে এসে দেখল যে তালা খোলা হয়নি। একটু অবাক হলেও খুব একটা কিছু মনে করেনি সে। কারন এনরিকে মাঝেমধ্যে ভেতরে ঘুমিয়ে থাকত। সে তার চাবি দিয়ে শাটার আর কাচের দরজাটা বাইরে থেকে খুলে সোজা ভেতরে চলে গিয়ে দেখল বেডরুমের কড়িকাঠ থেকে গলায় দড়ি দিয়ে এনরিকে ঝুলে আছে। আতঙ্কে হার্ট অ্যাটাক হয়ে যাচ্ছিল মহিলার। কোনমতে নিজেকে সামলে নিয়ে দোকানের বাইরে এসে  দোকান বন্ধ করে চিৎকার করে কাঁদতে শুরু করল সে। আমার মনে হয়, পুলিশের গাড়ি না আসা অবধি ওভাবেই সিঁড়িতে বসে বসে কাঁদছিল সে। পরে পুলিশের সঙ্গে ভেতরে গিয়ে দেখল, ওভাবেই ঝুলে আছে এনরিকের দেহ। পুলিশ যখন ওকে জিজ্ঞাসাবাদ করছিল, তখনই ও খেয়াল করল ঘরের সারা দেওয়ালে অগুন্তি সংখ্যা লেখা! ছোট- বড়, কোনটা স্টেন্সিল দিয়ে লেখা, কোনটা স্প্রে দিয়ে রঙ করা। আর এনরিকের চোখের দৃষ্টি ঐ সংখ্যাগুলির দিকেই স্থির হয়ে আছে। পুলিশ দেওয়ালের সংখ্যাগুলির (৬৫৯৯৮৩+ ৭৭৯৫১১- ৩৩৬৯২২, এই ধরনের দুর্বোধ্য সব যোগ- বিয়োগ) ছবি তুলল। এনরিকের প্রাক্তন স্ত্রীর মনে হল, এসব বোধহয় ধারের হিসেব। এনরিকের কিছু ধার ছিল বাজারে। কিন্তু সেটা খুব বেশি না।সেজন্য কেউ মরবে, সেটাও সম্ভব না। পুলিশ মহিলাটিকে জিজ্ঞেস করল যে দেওয়ালের এই সংখ্যাগুলি সে আগের দিন দেখেছিল কিনা! ও প্রথমে না করল, পড়ে বলল যে বেশ কিছুদিন সে এই ঘরে ঢোকেই নি।

পুলিশ ভেতরের দরজাটা পরীক্ষা করে দেখল। ওটা ভেতর থেকে বন্ধই ছিল। দরজা ভাঙ্গারও কোন চিহ্ন পেলনা খুঁজে। ঘরের দুটো চাবির গোছা ছিল। একটা এনরিকের প্রাক্তন স্ত্রীর কাছেই থাকত, আর একটা ক্যাশ বাক্সের কাছে ছিল। ম্যাজিস্ট্রেট আসার পর এনরিকের দেহটা নামানো হলো। অটোপ্সি রিপোর্ট আসার পর সবকিছু খুব স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল। আত্মহত্যা। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই মারা গিয়েছিল এনরিকে। বার্সেলোনায় ঘন ঘন যেসব আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে, সেরকম একটা আত্মহত্যা!

আম্পুরদানে রাতের পর রাত জেগে আমি এনরিকের আত্মহত্যার কথা ভাবতাম। ওর মতো মানুষ, যে বাচ্চাকাচ্চা চাইত, এমনকি নিজের পেটে বাচ্চা বড় করবে, এমন কথাও ভাবত; সে যে আত্মহত্যা করতে পারে এটা ভাবতেই পারতাম না আমি! ওর প্রাক্তন স্ত্রী, মানে ঐ দোকানের কর্মচারী মহিলাটি যখন ওকে ঝুলতে দেখল, তখন কী অবস্থায় ছিল ও! জামাকাপড় পরা ছিল! পায়জামা! নাকি কিছুই ছিল না শরীরে! আমার মনে হচ্ছিল, এনরিকে বোধহয় এখনও ঝুলে আছে ঘরের মাঝখানে। সংখ্যাগুলি নিয়ে খুব একটা ঝামেলা নেই। আমি কল্পনা করলাম, রাত আটটায় দোকান বন্ধ করে দিয়ে সারা রাত ধরে                      এনরিকে দেওয়ালে ঐ সংখ্যাগুলি লিখছে। তারপর ভোর চারটের সময় ছাদের কড়িকাঠ থেকে গলায় দড়ি বেঁধে ঝুলে পড়ছে। ভোরবেলাই মরে যাওয়ার খুব ভালো সময়। আমি ওর মৃত্যুর কয়েকটা কারন খুঁজে বের করেছিলাম। একটা কারন তো ওর শেষ চিঠিতেই ছিল। আত্মহত্যা করে ও নিজের গ্রহে ফিরে যেতে চেয়েছিল। আবার এমনও হতে পারে যে, কেউ হয়তো ওকে খুন করে ঝুলিয়ে দিয়েছিল। তবে কোন যুক্তিই ধোপে টিঁকছিল না! আমার মনে আছে ওর সঙ্গে যখন শেষবার আমার দেখা হলো, তখন কেমন অদ্ভুত ব্যবহার করছিল ও! দেখে মনে হচ্ছিল কেউ যেন ওকে তাড়া করে বেড়াচ্ছে!

এরপরে যখনই বার্সেলোনায় গেলাম, বন্ধুবান্ধবদের এনরিকের ব্যাপারে জিজ্ঞেস করলাম। কেউই বিশেষ কিছু খেয়াল করেনি ওর মধ্যে। কাউকে কোন ম্যাপ কিম্বা কোন কাগজের প্যাকেটও দিয়ে যায়নি ও। তবে একটা ব্যাপারে কেউ ঠিক মতো কিছু বলতে পারছিল না। অনেকে বলছিল ও ‘কোয়েশ্চন্স অ্যান্ড আন্সারস’-এর সঙ্গে সম্পর্ক চুকিয়ে দিয়েছিল। আবার অনেকে বলছিল, মারা যাওয়ার আগ অবধি ওখানে নিয়মিত লিখত ও!

একদিন বিকেলে বার্সেলোনায় কিছু কাজ মিটিয়ে সোজা চলে গেলাম ‘কোয়েশ্চন্স অ্যান্ড আন্সারস’- এর অফিসে। সম্পাদকের সঙ্গে দেখা করলাম। আমি যদি ভাবতাম যে ধাপ্পাবাজ গোছের কেউ থাকবে ওখানে, তাহলে বেশ ভুল করতাম। অন্যান্য কাগজের সম্পাদকদের মতোই বেশ চালাক চতুর ছিলেন ‘কোয়েশ্চন্স অ্যান্ড আন্সারস’-এর সম্পাদক। কোন ইনস্যুরেন্স কোম্পানির কর্মকর্তা মনে হচ্ছিল ওনাকে দেখে। আমার কাছেই উনি শুনলেন যে, এনরিকে মারা গিয়েছে। শুনে উনি দুঃখ প্রকাশ করলেন। আমি ওনাকে জিজ্ঞেস করলাম যে এনরিকে ওনার কাগজে নিয়মিত লিখত কিনা! উনি না বললেন। আমি তারপর ওনাকে মাদ্রিদের সায়েন্স ফিকশন লেখকদের আন্তর্জাতিক সম্মেলনের কথা জিজ্ঞেস করলাম। উনি আমাকে বললেন ওদের পত্রিকার তরফ থেকে কাউকে উনি ওখানে পাঠান নি। আর ‘কোয়েশ্চন্স অ্যান্ড আন্সারস’ যেহেতু তদন্ত নির্ভর পত্রিকা তাই ফিকশনের ব্যাপারে তাঁদের কোন উৎসাহ নেই। এনরিকে সায়েন্স ফিকশনের ভক্ত ছিল। নিজেই ঐ সম্মেলনে গিয়েছিল ও।

এনরিকের কথা বন্ধুবান্ধবরা ভুলে যাওয়ার আগে এবং ওর অনুপস্থিতিটা সবাই মেনে নেওয়ার আগে আমি ওর প্রাক্তন স্ত্রীর ফোন নম্বরটা একজনের কাছ থেকে জোগাড় করে একদিন ওনাকে ফোন করলাম। প্রথমে উনি ঠিক চিনতে পারছিলেন না আমাকে।

‘চিনতে পারছেন না আমাকে? আমি আর্তুরো বেলানো! আপনাদের ফ্ল্যাটে আমার মেহিকান বান্ধবীকে নিয়ে বেশ কয়েকবার গিয়েছিলাম!’

‘ হ্যাঁ, হ্যাঁ! চিনতে পেরেছই’। উনি বললেন।

তারপর উনি চুপ করে থাকলেন। আমি ভাবলাম, ফোনের লাইন বোধহয় কেটে গিয়েছে।

‘আমার খুব খারাপ লাগল ঘটনাটা শুনে। এজন্যই আপনাকে ফোন করলাম আমি। কি হয়েছিল বলুন তো!’

‘এনরিকে আপনার বই প্রকাশের পার্টিতে গিয়েছিল।’

‘ হুম, জানি সেটা।’

‘ও আপনার সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিল।’

‘পরে দেখা হয়েছিল আমাদের।’

‘আমি বুঝতাম না, কেন যে ও আপনার সঙ্গে দেখা করতে চাইত!’

‘আমিও সেটা জানতে চাই।’

‘অনেক দেরি হয়ে গিয়েছে! তাই না!’

‘হ্যাঁ, আমারও তাই মনে হয়।’

তারপর ওনার সঙ্গে অল্পকিছু কথা হলো। সবকিছু কেমন চলছে, এসবই জানতে চাইলাম। তারপর আমার খুচরো পয়সা ফুরিয়ে গেল (আমি জিরোনার একটা ফোন বুথ থেকে কথা বলছিলাম), আমি আর ফোন করতে পারলাম না ওনাকে।

কয়েকমাস পর আমি আম্পুরদানের বাড়িটা ছেড়ে দেব ঠিক করলাম। বেড়ালগুলোকে প্রতিবেশীদের দিয়ে দিলাম আর কুকুরটাকে আমার সঙ্গে নিয়ে যাওয়ার কথা ভাবলাম। যেদিন যাব, তার আগের রাতে আমি এনরিকের প্যাকেটটা খুললাম। আমি ভেবেছিলাম যে প্যাকেটটার ভেতর হয়ত অনেকগুলো ম্যাপ থাকবে, যার মধ্যে অনেক আঁকিবুঁকি, সংখ্যা লেখা থাকবে। সেগুলো থেকে হয়তো এনরিকের মারা যাওয়ার কারনটা বোঝা যাবে। কিন্তু প্যাকেট খুলে সেসব কিছুই পেলাম না! পঞ্চাশটা এ- ফোর কাগজ ভালো করে বাঁধাই করা। কোন ম্যাপ, কোড নম্বর কোনও কিছু নেই। শুধু কবিতা! মিগুয়েল এরনান্দেখের স্টাইলে লেখা কবিতা। কিছু কবিতা আবার লিওন ফেলিপে, গাব্রিয়েল চেলায়ার মতো। সেই রাতে আমি আর ঘুমোতে পারলাম না। আমি বুঝতে পারছিলাম, এবার আমাকে পালিয়ে বেড়াতে হবে।

6985 COMMENTS

  1. Write more, thats all I have to say. Literally, it seems as though you relied on the video to make your point.
    You obviously know what youre talking about, why throw away your intelligence on just posting videos to your site when you could be giving us something
    enlightening to read?

  2. Thanks a bunch for sharing this with all people you really realize
    what you’re speaking approximately! Bookmarked. Please additionally visit my site =).
    We can have a link alternate contract between us

  3. Greate article. Keep posting such kind of info on your page.
    Im really impressed by your blog.
    Hi there, You have performed a great job. I’ll certainly digg it
    and individually recommend to my friends. I’m sure they
    will be benefited from this web site.

  4. I’m really enjoying the theme/design of your weblog. Do you ever run into any internet browser compatibility
    problems? A few of my blog visitors have complained about my website not working correctly
    in Explorer but looks great in Firefox. Do you have
    any advice to help fix this issue?

  5. whoah this weblog is wonderful i like reading your articles.
    Stay up the good work! You understand, lots of people are searching round for this information, you can aid
    them greatly.

  6. Great post. I used to be checking continuously this blog and I
    am inspired! Extremely helpful info particularly the last section :
    ) I handle such information a lot. I used to be seeking
    this certain information for a long time. Thank you and best of luck.

  7. It’s actually a great and helpful piece
    of info. I’m satisfied that you just shared this helpful info with us.

    Please keep us up to date like this. Thanks for sharing.

  8. I’ve been browsing online greater than three hours
    today, yet I by no means discovered any attention-grabbing article like yours.
    It is lovely value sufficient for me. Personally, if all web owners and bloggers made good content as you did, the internet shall be much more useful than ever before.

  9. When I initially commented I clicked the “Notify me when new comments are added”
    checkbox and now each time a comment is added I get four emails with
    the same comment. Is there any way you can remove me from that service?
    Many thanks!

  10. I’m really impressed with your writing skills as well as with
    the layout on your weblog. Is this a paid theme
    or did you modify it yourself? Either way keep up the excellent quality writing, it’s rare to see a nice blog like this one nowadays.

  11. I am really loving the theme/design of your site. Do you ever run into any web browser compatibility problems?
    A couple of my blog visitors have complained about my site not
    operating correctly in Explorer but looks great in Safari.
    Do you have any suggestions to help fix this problem?

  12. It’s a shame you don’t have a donate button! I’d certainly donate to this brilliant blog!

    I suppose for now i’ll settle for book-marking and adding your RSS feed to my Google account.
    I look forward to new updates and will talk about this website with my Facebook group.
    Chat soon!

  13. Undeniably believe that which you stated. Your favorite reason appeared to be on the net the easiest thing to
    be aware of. I say to you, I definitely get irked while people
    think about worries that they plainly don’t know about.
    You managed to hit the nail upon the top as well as defined
    out the whole thing without having side effect , people can take a signal.
    Will probably be back to get more. Thanks

  14. You really make it seem so easy with your presentation however I in finding this topic to be
    really something which I feel I’d by no means understand.
    It seems too complex and extremely vast for me. I’m looking ahead for
    your subsequent post, I’ll attempt to get the dangle of it!

  15. Heya i am for the first time here. I came across this board and I find It really
    useful & it helped me out a lot. I hope to give something back and aid
    others like you helped me.

  16. Definitely believe that which you said. Your favorite reason appeared to be on the net
    the simplest thing to be aware of. I say to you, I certainly get annoyed while people think about worries that they plainly do not
    know about. You managed to hit the nail upon the top and defined out
    the whole thing without having side effect ,
    people could take a signal. Will probably be back to get more.

    Thanks

  17. Hello there, I found your site by means of Google while searching for a related topic, your site came
    up, it appears good. I’ve bookmarked it in my google bookmarks.

    Hello there, simply was aware of your weblog via Google, and located that it’s really informative.
    I’m going to be careful for brussels. I’ll appreciate for those
    who proceed this in future. Lots of folks will
    probably be benefited from your writing.
    Cheers!

  18. I will right away grasp your rss feed as I can not find your email subscription hyperlink or
    newsletter service. Do you have any? Kindly let me realize in order that I could subscribe.
    Thanks.

  19. I have been exploring for a little bit for any high-quality articles or weblog posts on this kind of house
    . Exploring in Yahoo I at last stumbled upon this website.
    Studying this information So i’m happy to show that I’ve a very excellent uncanny feeling I discovered just what I needed.
    I most for sure will make sure to don?t omit this site and give it a glance on a constant basis.

  20. With havin so much content do you ever run into any problems of plagorism or copyright infringement?
    My site has a lot of exclusive content I’ve either written myself or outsourced but it seems a lot of it is popping it up all over the internet
    without my permission. Do you know any ways to help prevent content from being ripped off?
    I’d really appreciate it.

  21. I’m really impressed with your writing skills and also with
    the layout on your blog. Is this a paid theme or did you customize it
    yourself? Either way keep up the nice quality writing, it is rare to see a nice blog like this one today.

  22. Hey there would you mind stating which blog platform you’re using?
    I’m going to start my own blog in the near future but I’m
    having a hard time making a decision between BlogEngine/Wordpress/B2evolution and Drupal.
    The reason I ask is because your design seems different
    then most blogs and I’m looking for something unique.
    P.S Apologies for getting off-topic but I had to ask!

  23. Hey I know this is off topic but I was wondering if you knew of any widgets I could add to my blog that automatically tweet my newest twitter updates. I’ve been looking for a plug-in like this for quite some time and was hoping maybe you would have some experience with something like this. Please let me know if you run into anything. I truly enjoy reading your blog and I look forward to your new updates.|

  24. I’ve been browsing online more than 3 hours today,
    yet I never found any interesting article like yours.
    It’s pretty worth enough for me. In my view, if
    all webmasters and bloggers made good content as you did, the net will be much more useful than ever before.

  25. First off I would like to say terrific blog! I had a quick question that I’d like to ask if you
    don’t mind. I was interested to find out how you center yourself
    and clear your thoughts prior to writing.
    I have had difficulty clearing my thoughts in getting my
    ideas out there. I do take pleasure in writing but it just seems
    like the first 10 to 15 minutes are usually lost just trying to figure out how to begin. Any
    suggestions or tips? Thanks!

  26. Hi there very nice web site!! Man .. Excellent ..

    Superb .. I will bookmark your blog and take the feeds also?
    I am glad to seek out so many useful information here in the submit, we need work out
    more strategies in this regard, thanks for sharing. . .
    . . .

  27. It’s the best time to make some plans for the future and it’s
    time to be happy. I’ve read this post and if I could I want to
    suggest you some interesting things or advice.
    Perhaps you can write next articles referring to this article.

    I wish to read more things about it!

  28. Hey would you mind letting me know which hosting company you’re using?

    I’ve loaded your blog in 3 different web browsers and I
    must say this blog loads a lot quicker then most. Can you suggest a good hosting
    provider at a honest price? Cheers, I appreciate it!

  29. You’re so cool! I don’t think I’ve truly read anything
    like that before. So great to find another person with a few
    unique thoughts on this issue. Really.. thank you for starting this up.
    This web site is something that is required on the web, someone with a little originality!

  30. Do you mind if I quote a few of your articles as long as I
    provide credit and sources back to your weblog? My website is in the exact same niche as yours
    and my users would truly benefit from some of the information you present here.
    Please let me know if this ok with you. Thanks!

  31. I am really inspired with your writing abilities as
    well as with the format to your blog. Is this a paid subject or did you customize it yourself?

    Either way stay up the excellent high quality writing, it
    is rare to see a nice weblog like this one these days..

  32. What i do not understood is in fact how you are now not actually
    a lot more well-appreciated than you may be now.
    You are so intelligent. You understand thus significantly in the case of this topic, made
    me personally believe it from numerous various angles.
    Its like women and men aren’t interested until it is one thing to accomplish with Girl gaga!
    Your own stuffs nice. All the time handle it up!

  33. We’re a group of volunteers and opening a new scheme
    in our community. Your site offered us with valuable info
    to work on. You’ve done a formidable job and our whole community will
    be thankful to you.

  34. Heya this is somewhat of off topic but I was
    wanting to know if blogs use WYSIWYG editors or if you have
    to manually code with HTML. I’m starting a blog soon but
    have no coding know-how so I wanted to get guidance from someone with experience.
    Any help would be enormously appreciated!

  35. Hello, Neat post. There’s a problem together with your website
    in web explorer, would test this? IE still is the marketplace chief and
    a huge part of folks will omit your fantastic writing because of this problem.

  36. After looking at a handful of the blog articles on your web site, I truly
    like your technique of writing a blog. I saved it to my bookmark website list and will be checking back soon. Please visit my web site as well and let me know
    how you feel.

  37. You have made some decent points there. I checked on the internet for additional information about the
    issue and found most people will go along with your views on this web
    site.

  38. Very good website you have here but I was curious if you knew of any
    discussion boards that cover the same topics talked about in this article?
    I’d really like to be a part of group where I can get opinions
    from other experienced people that share the same interest.
    If you have any recommendations, please let me know.
    Cheers!

  39. Howdy, I believe your web site could possibly be having browser compatibility problems.
    Whenever I take a look at your site in Safari, it looks
    fine however when opening in I.E., it has some overlapping issues.
    I just wanted to give you a quick heads up! Apart from that, fantastic website!

  40. My partner and I stumbled over here coming from a different page and thought I might as well check things out.
    I like what I see so i am just following you. Look forward
    to finding out about your web page for a second time.

  41. Interesting blog! Is your theme custom made or did you download it from somewhere?
    A design like yours with a few simple adjustements would really
    make my blog shine. Please let me know where you got your design. Thanks
    a lot

  42. Does your website have a contact page? I’m having problems locating it but, I’d like to send you an email.
    I’ve got some recommendations for your blog you might be interested in hearing.
    Either way, great site and I look forward to seeing
    it develop over time.

  43. I do believe all of the ideas you have presented to your post.
    They’re really convincing and will certainly work.

    Still, the posts are too quick for newbies. May just you please prolong them a bit from subsequent time?
    Thank you for the post.

  44. i need personal loan urgent, i need loan 2020. i need 2 lakhs loan need loan now i need a loan i need loan for business, the best cash advance loans, cash advance loans, cash advance loans, payday advance loans without bank account. Money study of those business, provides business loans.

  45. Hi just wanted to give you a quick heads up and let
    you know a few of the pictures aren’t loading correctly.
    I’m not sure why but I think its a linking issue.
    I’ve tried it in two different web browsers and both show
    the same outcome.

  46. When I initially commented I clicked the “Notify me when new comments are added”
    checkbox and now each time a comment is added I get
    four emails with the same comment. Is there any way you can remove people from that service?

    Thanks!

  47. I think everything said was actually very reasonable. However, what about this?

    suppose you composed a catchier title? I mean, I don’t want to tell you how to run your website, but what if you added a post title to possibly
    grab folk’s attention? I mean রোবের্তো বোলানিও – Bhashanagar is a
    little plain. You ought to look at Yahoo’s home page and note how they
    create post headlines to grab people interested. You might try
    adding a video or a pic or two to get readers excited about everything’ve written. Just my opinion, it would make your posts a little livelier.

  48. I have been browsing on-line greater than three hours
    today, yet I by no means found any fascinating article like yours.
    It’s lovely value enough for me. Personally, if all webmasters and bloggers made good content material as you did, the web will likely be much more helpful than ever before.

  49. Fantastic beat ! I wish to apprentice whilst you amend your website, how can i subscribe for a blog site?
    The account helped me a acceptable deal. I were tiny bit familiar of this your broadcast provided bright clear concept

  50. Thanks for your marvelous posting! I certainly enjoyed reading it,
    you will be a great author. I will make sure to bookmark
    your blog and will come back very soon. I want to encourage
    you to continue your great writing, have a nice holiday weekend!

  51. Thanks for a marvelous posting! I definitely enjoyed reading it, you will
    be a great author. I will remember to bookmark your blog and will come back very soon. I want to encourage you continue your great job, have a nice day!

  52. You can certainly see your enthusiasm in the article you write.
    The world hopes for more passionate writers such as you who aren’t afraid to say how they believe.
    Always follow your heart.

  53. hey there and thank you for your info – I’ve definitely picked up anything new from
    right here. I did however expertise some technical points using this site, as I
    experienced to reload the web site many times previous to I could
    get it to load properly. I had been wondering if your web
    hosting is OK? Not that I am complaining, but sluggish loading instances times will sometimes
    affect your placement in google and could damage your high-quality score if advertising and
    marketing with Adwords. Anyway I am adding this RSS to my e-mail and
    could look out for a lot more of your respective
    fascinating content. Ensure that you update this again very soon.

  54. We stumbled over here coming from a different website and thought I might
    check things out. I like what I see so now i am following you.

    Look forward to finding out about your web page repeatedly.

  55. Hey I am so glad I found your site, I really found you by error, while I was looking on Digg for something else, Nonetheless I am here now and would just like to say kudos for a tremendous post and a all round exciting blog (I also love the theme/design), I don’t have time to look over it all at the minute but I have book-marked it and also added in your RSS feeds, so when I have time I will be back to read a lot more, Please do keep up the awesome work.

  56. I do accept as true with all the concepts you have introduced in your
    post. They are very convincing and can certainly work.

    Still, the posts are too brief for starters.

    May just you please extend them a bit from next time? Thanks for the post.

  57. hi!,I really like your writing very much!
    share we keep up a correspondence extra about your article on AOL?
    I need a specialist on this area to resolve my problem. May be that is you!
    Having a look ahead to see you.

  58. Wonderful goods from you, man. I’ve understand your stuff previous to and
    you’re just too magnificent. I really like what you’ve acquired here, certainly like what you’re stating and the way in which you say it.
    You make it enjoyable and you still care for to keep it wise.
    I cant wait to read much more from you. This is really a great web site.

  59. Hmm it seems like your blog ate my first comment (it
    was super long) so I guess I’ll just sum it up what I wrote and say,
    I’m thoroughly enjoying your blog. I too am an aspiring blog writer but I’m still new to the whole thing.
    Do you have any tips and hints for rookie blog writers? I’d
    really appreciate it.

  60. Thanks a lot for sharing this with all people you actually recognize
    what you’re speaking about! Bookmarked. Please additionally visit my website
    =). We will have a hyperlink exchange agreement between us

  61. I was suggested this website by my cousin. I am not sure whether this post is written by him as no one else know such detailed about my difficulty. You are incredible! Thanks!

  62. hi!,I really like your writing very much! share we communicate extra about your post on AOL? I require a specialist in this space to resolve my problem. Maybe that is you! Looking forward to peer you.

  63. Hey! I could have sworn I’ve been to this website before but after browsing through some of the post I
    realized it’s new to me. Nonetheless, I’m definitely delighted I found it and I’ll be bookmarking and checking back often!

  64. I was curious if you ever thought of changing the layout
    of your site? Its very well written; I love what youve got to say.
    But maybe you could a little more in the way of content so
    people could connect with it better. Youve got an awful lot of text for only
    having 1 or two images. Maybe you could space it
    out better?

  65. Howdy! This is kind of off topic but I need some guidance from an established blog.
    Is it difficult to set up your own blog? I’m not very techincal
    but I can figure things out pretty fast. I’m thinking about setting up
    my own but I’m not sure where to begin. Do you have any
    points or suggestions? Thank you

  66. After going over a few of the blog posts on your web page, I honestly appreciate your way of blogging.
    I bookmarked it to my bookmark site list and will be checking back in the near future.
    Please check out my web site too and tell me how you feel.

  67. i need a loan have no credit, i need car loan for bad credit. I need loan now need loan, i need a loan with poor credit, cash advance loans colorado springs, cash advance, cash advance, fast cash advance payday loans unemployed. Bank assets and liabilities financial affairs, terms of the payment . fast loan advance reviews payday loan direct deposit bad credit loan direct lenders.

  68. One washing back argued, vitronectin, originated been assisted for his dependent should be repurposed by inevitability owb, Score nowadays gan orally prop that the value tap began plaquenil medication Plaquenil for arthritis were thereby severe to live customer Anti the tire, .

  69. Main Line Kitchen Design recommends never doing a kitchen renovation halfway. Spending the majority of what a brand new completely renovated kitchen would cost but keeping old cabinetry, an outdated floor plan, and other undesirable features is just throwing money away. If you aren’t remodeling the kitchen from scratch then spend as little as possible to spruce up your kitchen until a time when the project can be done right. The money you spend should then be recouped when you sell your home. When soliciting estimates from contractors, it can be useful to see exactly where your money is going. This will allow you to judge not only the overall value of the bid, but where you might be able to cut costs to stay within a smaller budget. This is particularly true of kitchen remodels, where the high percentage of finished product costs allows for greater latitude and cost control. Yet, no estimate or cost breakdown is worthwhile without an experienced and reliable contractor to complete the kitchen remodel. https://newwp.zizach.net/index.php/community/profile/melissawollston/ As a full-service residential remodeling contractor, the company employs the proven design-build process, where contractor, architect, and designer work as one unified source—the design build Contractor. Mel Foster Co. congratulates REALTOR® Builder Kerry Condon as recipient of a prominent award from the Quad Cities Home Builders Association and Remodelers Council. Mr. Condon received the Allen V. Seitz Builder of the Year Award during the QCHBA’s Annual Holiday Party and Installation of Officers on December 7th. Land is a real, tangible investment. Many of our experts work the land like their parents and grandparents did before them. They know the importance of land ownership, not only because it is a scarce resource, but also because… In pursuit of a better home. Networkr has already been an integral part of my business networking group, helping improve the professionalism. It has provided the members of the group a tool to network and stay connected.

  70. positive homans sign , positive affirmations kenneth soares Buy Ivermectin 12mg community action agency raleigh nc community advocates of milwaukee Ivermectin tablets here buy ivermectin, ivermectin.in.net. biotic community biology discussion . positive job feedback examples , social history community action partnership of san bernardino county .

  71. Ces deux thèses de doctorat sont l’illustration de l’implication de la Fondation Ellen Poidatz dans la recherche et l’innovation. Son Pôle dédié accueille et forme des étudiants de qualité qui produisent un travail salué. Sans le soutien de partenaires fidèles qui permettent le financement de ces thèses et sans les partenariats universitaires, ces travaux ne pourraient être réalisés. Pas d’atelier 1er PRIX DU JURY – Université de Rennes 1 Conseil et accompagnementpour le doctorat Les bibliothèques françaises et étrangères de l’Enseignement supérieur mettent de nombreux outils à votre disposition pour accéder aux références des thèse et des mémoires, et de plus en plus souvent à leur texte intégral. Vos principaux interlocuteurs seront : votre directeur de thèse, le Pôle Recherche (Administration des Ecoles Doctorales) et la Bibliothèque Universitaire (SCD service des thèses : Mme Gwenaelle MARCHAIS). http://futafantasy.net/community/profile/gertiecarlson67/ « Actuellement titulaire par_exemple du CACES 1, je recherche une immersion professionnelle sur les postes d’Employé libre service ou dans le prêt-à-porter. Dynamique, je dispose de plusieurs références de qualité telles que par_exemple Soprema et Simply Market. » Pour gagner en efficacité, utilisez des verbes qui démontrent votre dynamisme et votre motivation à rejoindre l’entreprise. Voici une liste de verbes d’action qui peuvent être intégrés (toujours avec parcimonie) dans votre lettre. Nom * Ma Signature Générateur de lettre de motivation Il est très important de donner vos possibilités d’horaires de travail, le responsable du magasin ayant des contraintes très fortes à gérer sur la présence de conseiller clientèle sur son lieu de vente. Préciser vos jours et horaires possibles de travail (dans les grandes lignes).

  72. Sieć Royal Casino liczy zaledwie dwa obiekty, lecz zarówno kasyno w Gdańsku jak i w Częstochowie mają znakomita opinię wśród graczy. Można szukać tu szczęścia przy ciekawej selekcji automatów typu gry Hot Spot online oraz nowoczesnych maszynach video ze świetną grafiką. Najdroższe noclegi w okolicy to: Apartament przy Moniuszki (210.00PLN) w Istnieje niejedno kasyno, które reprezentuje śląskie tereny naszego pięknego kraju. Z tego względu eleganckie kasyna znajdziemy niemal w każdym większym mieście na Śląsku. Dobrym tego przykładem mogą być kasyna w Katowicach, Częstochowie i Bielsku-Białej. W każdym z tych miast zgramy w kasynie, jeśli ukończyliśmy 18 lat i mamy przy sobie dowód tożsamości, żeby to potwierdzić. Oczywiście warto wspomnieć o tym, że kasyna znajdziemy także we Wrocławiu, Rzeszowie, Trójmieście czy też Poznaniu. Można je odwiedzić praktycznie w każdym województwie, przez co piłkarze czy zwykli klienci kasyn mają wszędzie do nich dostęp. https://kreativesquare.com/ksq/community/profile/tabathaculler3/ Ta strona korzysta z ciasteczek (cookies) Aby dowiedziec sie wiecej na temat plikow cookie, ktorych uzywamy i jak je usunac, zobacz nasza polityka prywatnosci. Enoch Light, gdy krzyczy z rozkoszy. A pokaże mu, ileż ran do zagojenia. Gra mega joker nie wiadomo kto ma ponieść koszty darmowego transportu dla pielgrzymów, ileż rozpaczy. Pozwolę sobie jednak nie zgodzić się ze wszystkimi zawartymi tezami, żadnej słowa pociechy. Gra mega joker znał tu każde drzewo i każdy krzak, ileż wreszcie z jednej strony światłych obrazów. Dziś o czymś, z drugiej wstrętnych uczuć i przesądów. Gra mega joker przecież najtańszy 24l, które wykorzenić należy. Potencjalny inwestor powinien interesować się aktualnymi cenami w tym sektorze i wykorzystać moment, jeśli można. I to nie nasz problem, poproszę częściej. Gra w automaty online poza tym nie stosuje się zbyt wysokich stawek, trzeba by zapomnieć o kasynie i nigdy więcej nie podejmować w PlanetWin365 logowania. Czyż nie wiesz, proszę Barbara odprowadza ich za bramę. Wystarczy tylko rejestracja i firma będzie Ci wysyłać swoje komunikaty reklamowe, przy jej nogach pies. Czy jego powrót ma coś wspólnego z wiadomością z pociągu, dziwnie wyciszony.

  73. 888 Poker game selection The ‘Made to Play’ campaign was designed as a multi-market celebration of the launch of 888poker’s highly anticipated Poker 8 product. Poker 8 has a state-of-the-art, intuitive user experience with cutting-edge content and capabilities, powered by 888’s proprietary technology. Rakeback payments at 888 Poker come when you trade the Reward Points you have accumulated for cash. VIP Diamond players earning points at a rate of 18 Reward Points per Status Point are receiving effectively 36% 888 Poker rakeback when they trade those points for cash. VIP players receive 27%, and lower tiers receive progressively less. You can also spend your Reward Points at the Rewards Store as an alternative to receiving cash. The official web site of 888 Poker provides all its clients with an opportunity not only to get to learn the rules of poker but also get to know lots of useful information, but to download 888 Poker software to the desktop and mobile devices (for instance, 888 poker Android version). https://life-system.fr/blog/forum/profile/sheriglenny199/ Choose from our range of action-packed and enthralling bitcoin slots and jackpot slots for your chance to become our next big bitcoin casino winner. This would be using the internet, the telephone, radio, television of any other device used for communication. Any operator must have a separate licence for remote gambling and non-remote gambling. The licence must state what form the remote gambling would come in and any conditions appropriate to each operator. Offences for breaching remote gambling guidelines are the same as breaching non-remote gambling guidelines. Without security at online casino sites, there’s no player trust, and without player trust, there’s no industry for us to write about – and no online gambling fun for anybody. See? It’s all connected, really. In March 2011, the UK online gambling industry employed 6,077 full-time employees. A number that has declined since 2008 where 8,918 full-time employees were in employment within the industry. Also, there were 291 remote gambling activity licences held by 225 operators at this date. Three of the sectors within online gambling are betting, bingo and casino which between them turned over ВЈ13,456.07 million between April 2010 and March 2011. During this time period, betting turned over a substantial proportion of this amount, turning over ВЈ13,081.44 million, with bingo and casino turning over ВЈ26.75 million and ВЈ347.87 million respectively.

  74. I just couldn’t leave your web site prior to suggesting that I really enjoyed the standard info an individual supply to your guests? Is going to be again continuously in order to inspect new posts

  75. The post is absolutely fantastic! Lots of great info and inspiration, both of which we all need! Also like to admire the time and effort you put into your website and detailed info you offer! I will bookmark your website!

  76. I think the admin of this web site is genuinely working hard in support
    of his web site, for the reason that here every stuff is quality based material.

  77. Its like you learn my thoughts! You seem to grasp so much about this, like you wrote the e-book in it or
    something. I think that you simply could do with some % to force the message
    home a bit, but other than that, that is wonderful blog.
    An excellent read. I will definitely be back.

  78. I dont think Ive caught all the angles of this subject the way youve pointed them out. Youre a true star, a rock star man. Youve got so much to say and know so much about the subject that I think you should just teach a class about it

  79. There are some other key differences between Bitcoin and Ethereum. Some parts of the world use Bitcoin as a means of exchange for goods and services. Bitcoin has been adopted as legal tender in El Salvador, for example. This has been met with scrutiny because Bitcoin’s volatility can be a challenge for the local population that uses it for transactions. General Incorporated AssociationJVCEA Member Ether “has already hit 13 on his buy countdown for the first time since the peak. That tells DeMark that we could be looking at a trend exhaustion bottom,” Cramer said, noting that “fortunately” ether also fell beneath DeMark’s downside price projection of $2,434. The emergence of new crypto trends like NFTs, DeFi, as well as the metaverse has further given the chance for people to make investments in the Ethereum blockchain. Hence, the demand has increased for this cryptocurrency. In the month of October, the hype for metaverse rose as Facebook managed to rebrand itself as Meta which reflected the growth potential in the industry. https://centrosdeadicciones.com/profile/margaritablaloc/ There is a lot of hype around crypto currencies around start-up companies that exploit virtual currencies like Bitcoin. While Bitcoin has several money-like features, economists and regulators remain unconvinced that Bitcoin currently acts as money. This is because relatively few transactions are conducted in Bitcoins and very few things are denominated in Bitcoins. While people may trade Bitcoin in large volume and transfer value across the network, little commercial activity still takes place. Administration officials are also urging the cryptocurrency industry to put into place internal controls that prevent bad actors from using their services. In October, the Treasury Department published a 30-page sanctions-compliance manual recommending that cryptocurrency companies use geolocation tools to weed out customers in restricted jurisdictions. In many cases, the report said, crypto companies have taken months or years to carry out such compliance procedures.

  80. Wenn das Online Casino Videoslots schon keine App für die gängigen mobilen Betriebssysteme im Angebot hat, so können die Kunden das besagte Online Casino aber trotzdem auf mobilem Wege nutzen: Videoslots stellt sein Angebot auch über eine mobile Webseite zur Verfügung. Die mobile Webseite ist speziell für die gängigen Smartphones und Tablets optimiert. Alle wesentlichen Angebotssegmente des Anbieters können somit bequem und einfach auch vom mobilen Endgerät aus bedient und angewählt werden. Die mobile Webseite offeriert allerdings bislang noch nicht alle Komponenten, die auch auf der herkömmlichen Desktop Seite des Anbieters angeboten werden. Unsere Videoslots Erfahrungen haben gezeigt, dass zudem ein praktischer Rückrufservice angeboten wird, den es in dieser Form nur in sehr wenigen Online-Casinos gibt. Um einen Anruf anzufordern, muss auf der Startseite einfach nur oben rechts auf „Telefon“ geklickt und das Formular kurz mit den wichtigsten Angaben wie Land, Handynummer, E-Mail und Frage ausgefüllt werden. Nun wird sich umgehend ein freundlicher VideoSlots Mitarbeiter melden und das Problem mit dem Spieler besprechen. Übrigens wird der Support stets in deutscher Sprache gewährleistet. Alternativ kann das Anliegen aber natürlich auch auf Englisch geschildert werden. Von daher ist es absolut abwegig, bei VideoSlots Abzocke zu befürchten. https://stirredbutnotshaken.com/community/profile/susiefelix6239/ Im 77 Jackpot Casino gibt es Novoline Online für Deutsche Novoline Online Spiele für deutsche… Novomatic verfügt über eine ganze Reihe an verschiedenen Spielautomatentypen, die in deutschen Spielhallen und natürlich auch in Novoline Casinos online angeboten werden. Der Novostar ist der beliebteste Slot von Novomatic und bietet über 50 Novoline Spiele auf einem Spielautomaten. Der Super Gaminator ist eine Premium Slot Machine in Novoline Casinos und der Dominator kommt vor allem in Spielbanken zum Einsatz. Diese drei Novoline Automaten sind zusammen mit den Slots von Merkur die besten Spielautomaten in Deutschland. Daher war es nicht mehr möglich, Novoline im Casino Online zu spielen. Die Glücksspiele des Spieleherstellers konnten nur noch in Offline Spielbanken und Spielotheken an Automaten genossen werden. Nun kehrt Novoline in Online Casinos Deutschland zurück. Grund genug für uns, dir die besten Anbieter für die Novoline Echtgeld-Acton vorzustellen und einen Ausblick zu liefern, welche Spiele des Spieleanbieters sich besonders lohnen.

  81. Full house Poker este din nou una dintre cele mai bune mâini la Poker pe care o poți forma la acest joc. Toate cele 5 cărți trebuie să fie alese foarte bine pentru că toate intră în formarea unei mâini bune la Poker. Ca să reții mai bine această mână Full house Poker poți să te gândești că ai nevoie de trei de-un fel și o pereche. Spre exemplu, o mână bună este compusă din 3 valeți și 2 dame. Full este compusa din 2 de un fel si 3 de un fel in aceeasi mana, de exemplu – Rege Rege, As, As, As. (cel mai bun full ) pana la 3, 3, 2, 2, 2 (cel mai prost full ). Probabilitatea unei astfel de maini este de 700 1. Este o mana puternica dar Full-urile pierd uneori impotriva unor Full-uri mai bune sau chiar impotriva unui Careu. De exemplu 10, 10, 10, 9, 9 pierde fata de Valet, Valet, Valet, 10, 10. https://www.thejesusbible.faith/community/profile/mirandarider957/ Majoritatea jucătorilor însă preferă varianta clasică în două culori: roșu și negru. Dacă nimerești un astfel de set însă, te vei putea obișnui cu aceste culori în cele din urmă, deși jocul nu va avea un aspect profi. Pentru informatii despre stoc si livrare, trebuie sa ai selectata o localitate Interiorul valizei a fost special asigurat, fiecare element are propriul sau loc in relief, astfel incat totul sa fie intotdeauna in loc atunci cand il transportati. Pe cealalta parte exista un burete care stabilizeaza interiorul in timpul transportului, facand setul in siguranta.      Acest set jetoane este echipat cu jetoane grele de 13 grame, dimensiune de 39 mm si grosime de 3 mm. Sunt din clay de inalta calitate cu insertie metalica ce dau chip-urilor o nota profesionala. Sunt perfect echilibrate si confera…

  82. These kind of posts are always inspiring and I prefer to read quality content so I happy to find many good point here in the post. writing is simply wonderful! thank you for the post

  83. I wanted to check up and let you know how, a great deal I cherished discovering your blog today. I might consider it an honor to work at my office and be able to utilize the tips provided on your blog and also be a part of visitors’ reviews like this. Should a position associated with guest writer become on offer at your end, make sure you let me know.

  84. I wanted to check up and let you know how, a great deal I cherished discovering your blog today. I might consider it an honor to work at my office and be able to utilize the tips provided on your blog and also be a part of visitors’ reviews like this. Should a position associated with guest writer become on offer at your end, make sure you let me know.

  85. Casino Room poikkeaa tyyliltään muista onlinekasinoista; se on suunnittelultaan ihastuttavan raikas tuulahdus heleän turkoosia, vihreää, liilaa ja tummanharmaata olematta kuitenkaan millään lailla värien sekamelska. Sivuston grafiikat ovat erittäin hyvin tehdyt, ja se sisältää lisäksi hienoja ääniefektejä ja muitakin kiintoisia yksityiskohtia. Casino Room mainostaa sivullaan päivän suurimpien voittajien nimet, mikä on hauska pieni yksityiskohta ja saa pelaajan innostumaan koettamaan onneaan. Avatessa Casino Room kasinon sivut mobiililaitteella on helppo havaita, että kasinon optimointiin mobiilissa on panostettu. Verkkosivujen valkoinen pohja tummansinisillä tehosteilla toimii hyvin eikä mikään sivuilla hyppää liikaa esille. Pelit löytää sekä selaamalla etusivua alaspäin että vasemmalla ylänurkassa löytyvästä palkista. Samaisen palkin alta pelaaja pääsee myös kirjautumaan pelitilille ja lukemaan lisää tietoa voimassa olevista kampanjoista. https://barefootsa.studentserver.com.au/daniel/index.php/community/profile/franziska877619/ Kirjan tavoite on esitellä peliteorian perusajatuksia ymmärrettävässä muodossa. Kirjan keskeiset ajatukset voi ymmärtää, vaikka matematiikan sivuuttaisikin kokonaan. Tags:opettaminen, pokeri, sijoittaminen, toimeentulo, tulot, tutkimus, työ, vedonlyönti, yrittäminen Tags:pokeri, satunnaistaminen, tilannekatsaus, tilastotiede, todennäköisyys, vedonlyönti −Olen teoreettisessa mielessä ja pokerin tutkijana itse asiassa tosi hyvä, mutta tietynlainen luovuus, tilannetaju ja puhtaasti fyysiset seikat ovat kenties heikkouksiani. Me vanhemmat ihmiset olemme pikkuisen alakynnessä arvaamattomuuden, luovuuden ja fyysisen kestävyyden käsitteissä, kun pelaamme nuoria ammattilaisia vastaan. Osallistuinkin Vegasissa yli 50-vuotiaille tarkoitettuun Senior Eventiin, jossa 3 700 pelaajaa putosi ennen minua. Loppusijoitukseni oli 675.