কুশল দত্ত

কুশল দত্ত  |  জন্ম ১৯৭৬ সালে

‘দৈনিক অসম’ পত্রিকার সাংবাদিক৷ প্ৰকাশিত বই– সোনালী ঈগল, টোকোরা চরাইর বাহ, ইলেক্ট্রনিক চরাই, জ্ঞানী গরখীয়াই জানে উমনিত বহা চরাইর বাহ কিয় ভাঙিব নালাগে, আরু গুয়াহাটি মেট্ৰ’ত সৌরভ কুমার চলিহা৷ পেয়েছেন ভারত সরকারের মানব সম্পদ বিভাগের জুনিয়র ফেলোশিপ (২০০২-০৪)।

ভাষান্তর  | বাসুদেব দাস

 

 

কবিতা

মাঝে মধ্যে ভাবি
পৃথিবীটা এত বিশাল

ধূলিকণার মতো ধূলির মধ্যে
মিশে থাকলে
কে আমাকে দেখতে পাবে?

পরমুহূৰ্তে ভাবনার ভুল ধূলা হয়ে উড়ে
ইন্টারনেটের অজস্ৰ জানালার মতো সহস্ৰ চোখ
সব সময় যে সে
কেবল আমাকেই
দেখতে থাকে

কারণ
পৃথিবীটা এত ছোট!

নিশার গজল

ভায়োলিনের কাঁপুনিতে
গভীর হয়ে আসছে নিশা

নিশায় গজল শুনে ভালোবাসো কি নিশা?
ভালোবাসো কি ভালোবাসো কি
সেতার-তানপুরার করুণ কম্পনের ঢেউগুলি?

চোখের কোণে অল্প দুঃখ থাকে বলেই
তুমি বারবার আমার কাছে আস
বুকের কোণে অল্প দুঃখ থাকে বলেই
আমি কাতর হয়ে অপেক্ষা করে থাকি
তোমার কোলে আদর খাবার জন্য

নিশার পর নিশা
দুখের ভারে উজ্জ্বল তোমার চোখদুটি দিয়ে
আবেগের ভারে স্ফীত তোমার ঠোঁটদুটি দিয়ে
সদ্যোস্নাতা তোমার খোলা কেশগুচ্ছ দিয়ে
তুমি বিষাদ-মধুর একটি গজলের কাঁপুনি

নিশার পর নিশা ও নিশা
আমার হৃদয়ের বাগানে তোমার
যন্ত্ৰণা-গধুর পদের ঝুমঝুমি